কাহারোলে শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব পালত কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের উত্তোজনা

সেপ্টেম্বর ২, ২০১৮ ৯:২৭ দুপুর

দিনাজপুর প্রতিনিধি:

রবিবার সকাল ১১ টায় ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব পালত কেন্দ্র করে কাহারোল পুজা উৎযাপন কমিটি ও কাহারোল উপজেলা কেন্দীয় পুজা উৎযাপন কমিটির আয়োজনে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার ২ গ্রুপের উত্তোজনা সৃষ্টি হয়েছে।

এ সময় ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব শোভাযাত্রার শেষে উত্তোজনা সৃষ্টির প্রসঙ্গ নিয়ে কাহারোল উপজেলা কেন্দীয় পুজা উৎযাপন পরিষদ প্রাঙ্গণে আলোচনা সভায় উপজেলা কেন্দীয় পুজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি গোপেশ চন্দ্র রায় সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন বীরগঞ্জ কাহারোলের সাবেক এমপি আব্দুল মালেক সরকার,কাহারোল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাফিজুল ইসলাম,ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ সভাপতি ও আওয়ামী লীগের তরুন নেতা আবু হুসাইন বিপু, বীরগঞ্জ কাহারোলের সাবেক এমপি ও বীরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মো.আমিনুর ইসলাম, কাহারোল উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ- সভাপতি মনোয়ারুল, বীরগঞ্জ ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মো. রোকুনজাম্মান বিপ্লব প্রমুখ্য সহ কাহারোল-বীরগঞ্জ উপজেলার আওয়ামীলীগের বিভিন্ন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভায় কাহারোল উপজেলা কেন্দীয় পুজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি গোপেশ চন্দ্র রায় এমপি গোপালের সমালোচনা করে বলেন, এমপি গোপাল হিন্দু বিবাদ সৃষ্টি করার জন্য তিনি কাহারোল পুজা উৎযাপন কমিটি করে ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব শোভাযাত্রা আয়োজন করেছেন।আগামী জাতীয় দশম সংসদ নির্বাচনে মনোনীত হওয়ার লোভে জামাত -বিএনপির নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে সভাযাত্রার হিন্দুদের মধ্যে উত্তোজনা সৃষ্টি করছে। অতীতে আমরা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান এমপি গোপালের নিদর্শনায় জামাত -বিএনপির নেতাকর্মীদের মাধ্যমে বহু বার নির্যাতন হয়েছি।

বীরগঞ্জ কাহারোলের সাবেক এমপি আব্দুল মালেক সরকার বলেন,আওয়ামী লীগের কোন লোককে এমপি গোপাল চেনেনা, উনার ব্যক্তিগত কিছু বাহিনীর লোক নিয়ে চলাচল করে । আওয়ামী লীগ বিদ্বেষী এমপি গোপাল নিজের ব্যক্তিগত লাভ ছাড়া অন্য কিছু বুঝে না ।তিনি আরও বলেন,১০ বছরে বীরগঞ্জ ও কাহারোলের সংখ্যা লঘু অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সুতরাং আমাদের নিরাপত্তার সার্থে এই সাংসদের পরির্বতন চাই।

বীরগঞ্জ কাহারোলের সাবেক এমপি ও বীরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুর ইসলাম বলেন, বিএনপি জামায়াত লোকদেরকে নিয়ে এমপি গোপাল ভিন্ন ভাবে ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মাষ্টমী উৎসব পালন করেছেন। তার জন্যই সভাযাত্রার হিন্দুদের মাঝে উত্তোজনা সৃষ্টি হয়েছে।

এসময় আরও অন্যন্যদের মধ্যে বলেন,এমপি গোপালের সন্ত্রাসী কার্যকলাপে হিন্দু মুসলিমসহ সকল ধর্মের মানুষেরা অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে ।মাদক ব্যবসায়ীদেরকে বাড়তি সুবিধা নিয়ে মাদক ব্যবসায়ীদেরকে উদ্ধৃদ্ধকারী হিসাবে এলাকায় পরিচিত এমপি গোপাল ।আমরা কোন দুর্নীতি বাজ নেতা চাইনা , আমরা দুর্নীতি মুক্ত, মাদক মুক্ত, সন্ত্রাস মুক্ত ও বহিরাগত মুক্ত নেতা চাই।