দুবাই ও আবুধাবী দূতাবাস পাসর্পোট কপি ছাড়াই পাসর্পোট বানানোর সুযোগ

সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৮ ১২:৩৮ দুপুর

ওয়াসীম আকরাম বিশেষ প্রতিনিধি :-

আজ বিকালে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবীস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের কনফারেন্স রুমে দূতাবাসের উদ্যোগে সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এসময় রাষ্ট্রদূত ডাক্তার মুহাম্মদ ইমরান সকল অবৈধ বাংলাদেশী অভিবাসীদেরকে সেপ্টেম্বর মাসের ২০ তারিখের মধ্যে পাসর্পোট সংক্রান্ত কাজ সম্পন্ন করার আহবান জানান অন্যথায় এই বিরল সুযোগ থেকে বাদ পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান।

কেননা আগামী অক্টোবর মাসের ৩১ তারিখ সাধারণ ক্ষমার সময়সীমা শেষ হবে। তাই এই মাসের ২০ তারিখের মধ্যে যেকোন ধরনের সমস্যা থাকুকনা কেন, সবাইকে দূতাবাসে আসার আহবান করেন রাষ্ট্রদূত। এই র্পযন্ত প্রায় ১২ হাজার অবৈধ অভিবাসীকে পাসর্পোট বানানোর সুযোগ দিয়েছে আবুধাবী ও দুবাই দূতাবাস। এখন থেকে অবৈধ অভিবাসীদের ভিসা যেই প্রদেশে বা যেই জায়গারই হোক না কেন, দুবাই বা আবুধাবী দূতাবাসে গেলে পাসর্পোট বানানোর সুযোগ দেয়া হবে। দুবাই কনসূলেট থেকে পাসর্পোট কপি না থাকায় যাদের কে পাসর্পোট বানানোর সুযোগ দেয়া হয়নি তাদেরকেও এখন থেকে পাসর্পোট কপি ছাড়া পাসর্পোট বানানোর সুযোগ দেয়া হবে বলে জানান রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ ইমরান।

দূবাই কনসূলেট এর বিরুদ্ধে প্রবাসীদের বিভিন্ন অভিযোগের উত্তরে রাষ্ট্রদূত জানান, দুবাই কনসূলেটকে সেবার মান বৃদ্ধি ও প্রবাসীদের সব ধরণের সুযোগ সুবিধা দেয়ার ব্যাপারে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এবং দুবাইস্থ সকল প্রবাসীকে দুবাই কনসূলেট থেকে সেবা নেয়ার আহবান জানান। আর যারা ভিসিট ভিসায় এসে অবৈধ হয়ে সাধারণ ক্ষমার সুযোগ নেয়ার আশা করছেন, তাদের জন্য রয়েছে দুঃসংবাদ কেননা ৩১ জুলাই এর আগে যারা অবৈধ হয়েছিলেন তাদের জন্য এই সুযোগ। আর ৩১ জুলাই এর পর যারা অবৈধ হবেন তারা এই সুযোগ পাবেন না। সুতরাং সবাইকে সাবধান থাকার পরার্মশ দিয়েছেন রাষ্ট্রদূত। সাধারণ ক্ষমার এই সময়ের মধ্যে প্রায় ১০০০ প্রবাসী আউট পাশ নিয়ে দেশে গিয়েছেন বলেও জানানা তিনি।

যারা ছয় মাসের জব সিকার ভিসা পেয়েছেন তাদেরকে আমিরাতের লেবার মিনিস্ট্রি থেকে ভিসা দেয়া হচ্ছে। তারা যেকোন কোম্পানিতে ভিসা লাগাতে পারবেন। তবে যারা বৈধ তাদের জন্য ভিসা ও ভিসা ট্রান্সফার সংক্রান্ত জটিলতার কোন সমাধান হয়নি। তাই শ্রমিকের ভিসা খোলা হয়েছে বলে যারা গুজব ছড়াচ্ছেন তাদের থেকে সবাইকে সাবধান থাকার আহবান জানান প্রবাসীরা। আর পাসর্পোট এর রশিদ নাম্বার যাদের ARE 419999 এর মধ্যে আছে তাদের সকলের পাসর্পোট দেশ থেকে দূতাবাসে চলে এসেছে এবং তাদের সবাইকে দূতাবাসে গিয়ে পাসর্পোট গ্রহণ করার আহবান জানান রাষ্ট্রদূত।