দৃশ্যমান হচ্ছে পদ্মাসেতুর ৯০০ মিটার

জানুয়ারি ৫, ২০১৯ ১১:১৯ দুপুর

নিউজ ডেস্ক:

দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে স্বপ্নের পদ্মাসেতুর নির্মাণ কাজ। এরইমধ্যে প্রস্তুত হয়েছে পদ্মা সেতুর ষষ্ঠ স্প্যান। আগামী ১৫ জানুয়ারির এই স্প্যানটি বসানোর মাধ্যমে সেতুর ৯০০ মিটার দৃশ্যমান হবে। অন্যদিকে ফেব্রুয়ারিতে বসে যেতে পারে আরও একটি স্প্যান। সপ্তম স্প্যানটি বসানো হলে সেতুর এক কিলোমিটারের বেশি অংশ দৃশ্যমান হবে।

পদ্মা সেতু প্রকল্পের পরিচালক শফিকুল ইসলাম এসব তথ্য জানিয়ে বলেন, স্প্যানটি শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবা প্রান্তে বসানো হবে। জাজিরা প্রান্তের তীরের দিকের এটিই শেষ স্প্যান। এছাড়া মাওয়া প্রান্তে স্প্যান স্থাপনের কাজ চলছে।

পদ্মা সেতু প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, মাওয়ার কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডের সামনে ষষ্ঠ স্প্যানটি প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। এটি বসানো হবে সেতুর ৩৭ ও ৩৬ নম্বর পিলারের ওপর। আর ৩৬ ও ৩৫ পিলার দুটিতে বসানো হবে সপ্তম স্প্যানটি।

এর আগে ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারের ওপর প্রথম স্প্যান, ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি ৩৮ ও ৩৯ নম্বর পিলারের ওপর দ্বিতীয় স্প্যান, ১১ মার্চ ৩৯ ও ৪০ নম্বর পিলারের ওপর তৃতীয় স্প্যান, ১৩ মে ৪০ ও ৪১ নম্বর পিলারের ওপর চতুর্থ স্প্যান এবং সর্বশেষ গত ২৯ জুন ৪১ ও ৪২ নম্বর পিলারের ওপর পঞ্চম স্প্যান বসানো হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতুর ৭৫০ মিটার দৃশ্যমান হয়। ছয় মাস পর ষষ্ঠ স্প্যানটি বসতে যাচ্ছে।

পুরো সেতুতে মোট পিলারের সংখ্যা ৪২টি। প্রতিটি পিলারের রাখা হয়েছিল ছয়টি পাইল। একটি থেকে আরেকটি পিলারের দূরত্ব ১৫০ মিটার।

পদ্মা সেতু প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, কুমারভোগ কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ডে আরও স্প্যান প্রস্তুত করার কাজ বেশ দ্রুত চলছে। সেখানে আরও পাঁচটি স্প্যানের ৯০ শতাংশ প্রস্তুতের কাজ শেষ হয়েছে। এ মাসের মধ্যে এসব স্প্যান প্রস্তুত হয়ে যাবে। এই স্প্যানগুলো আগামী কয়েক মাসের মধ্যে বসানো হবে। তবে আপাতত জাজিরা প্রান্ত থেকে স্প্যান বসানোর কাজ চলবে। ৬ ও ৭ নম্বর পিলার নির্মাণকাজ শেষ না হওয়ায় মাওয়া প্রান্তে স্প্যান আপাতত বসানো হচ্ছে না। এ দুটি পিলারের কাজ শেষ হলে মাওয়ায় স্প্যান বসানো শুরু হবে। তবে মাঝনদীতে ১২ ও ১৩ নম্বর পিলার দুটি প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে।