পুঁজিবাজারের বেড়েছে মূলধন, কমেছে লেনদেন

আগস্ট ৬, ২০১৮ ১১:২৯ সকাল

নিউজ ডেক্সঃ

নতুন বিনিয়োগ প্রবেশ ও বিনিয়োগকারীর শেয়ার কেনায় পুঁজিবাজারের মূলধন বেড়েছে। অর্থাৎ বিগত সপ্তাহের চেয়ে সদ্য শেষ হওয়া সপ্তাহে পুঁজিবাজারের মূলধন বেড়েছে। তবে কমেছে লেনদেন। একই সঙ্গে দৈনিক গড় লেনদেনও হ্রাস পেয়েছে।

বাজারসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, মুদ্রানীতি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীরা কিছুটা দ্বিধার মধ্যে ছিল। মুদ্রা বাজার নিয়ন্ত্রণে মুদ্রানীতির কোনো সিদ্ধান্তে পুঁজিবাজারও প্রভাবিত হয়। এ জন্য ব্যাংক খাতের তারল্য সংকটের বিষয়ে নির্দেশনার বিষয়ে দ্বিধার মধ্যে ছিল বিনিয়োগকারীরা। এ জন্য শেয়ার বিক্রির চাপ বেশি ছিল। বিক্রির চাপে সূচক ও লেনদেন নিম্নমুখী ছিল।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মার্কেট মূলধন বেড়েছে ০.৯৪ শতাংশ বা সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা। লেনদেন কমেছে ২৩ শতাংশ।

ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, এই সপ্তাহে পুঁজিবাজারে লেনদেন হয়েছে তিন হাজার ৪২৯ কোটি এক লাখ ৯৭ হাজার ৭৫১ টাকা। যা আগের সপ্তাহে ছিল চার হাজার ৪৫৪ কোটি ৭২ লাখ ৯৩ হাজার ৮২৩ টাকা। সেই হিসাবে লেনদেন হ্রাস পেয়েছে ২৩.০৩ শতাংশ বা এক হাজার ২৫ কোটি ৭০ লাখ টাকা।

ডিএসইর গড় লেনদেন অনুযায়ী, প্রতিদিনই লেনদেন কমেছে ২০০ কোটি টাকার বেশি। আগের সপ্তাহে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছিল ৮৯০ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। তবে এই সপ্তাহে লেনদেন কমে দাঁড়িয়েছে ৬৮৫ কোটি ৮০ লাখ টাকা। সেই হিসাবে লেনদেন হ্রাস পেয়েছে ২০৫ কোটি ১৪ লাখ টাকা।

বাজার নির্দেশকের তিন সূচকই বৃদ্ধি পেয়েছে। ডিএসইএক্স সূচক ১.৭৮ শতাংশ বা ৯৪ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়েছে। ডিএসই-৩০ মূল্যসূচক বেড়েছে ৮.৭৩ পয়েন্ট বা ০.৪৬ শতাংশ আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক বেড়েছে ২.৩২ পয়েন্ট বা ০.১৮ শতাংশ। ডিএসইর বাজার মূলধন এই সপ্তাহে বৃদ্ধি পেয়েছে। সপ্তাহের শুরুতে ডিএসইর বাজার মূলধন ছিল তিন লাখ ৮৩ হাজার ২২৩ কোটি ২৭ লাখ ১৩ হাজার ৭৬৯ টাকা। সপ্তাহের শেষে মূলধন দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৮৬ হাজার ৮২৬ কোটি ২১ লাখ ৩৮ হাজার ৯৭ টাকা। সেই হিসাবে মূলধন বেড়েছে ০.৯৪ শতাংশ বা তিন হাজার ৬০২ কোটি ৯৪ লাখ টাকা।