কাপাসিয়ায় প্রবাসীর ২শ কলাগাছ কেটেছে দূর্বৃত্তরা

সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮ ৭:৫১ দুপুর

কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি

কাপসিয়া উপজেলার কামারগাঁও গ্রামের মৃত: গিয়াস উদ্দিনের ছেলে মালয়েশিয়া প্রবাসী কাজল মিয়াকে হত্যার হুমকি ও ২শতাধিক কলাগাছ কর্তন করেছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার রাতে গবাধি পশুর ঘাস খাওয়ানো নিয়ে ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় কাজল মিয়া বাদী হয়ে স্থানীয় ঘাগটিয়া ইউনিয়ন পরিষদে অভিযোগ করলে চেয়ারম্যান শাহীনুর আলম সেলিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী কাজল মিয়া ও তাঁর পরিবার জানায়, আমার বাড়ীর পাশে পতিত একটি জমিতে কলাগাছ ও সবজি বাগান করেছি। পাশের বাড়ীর মানিক মিয়া চেয়েছিলো জমিটা পতিত রেখে দেই। আমি এতে রাজি হইনাই। এ ক্ষোভে গত শুক্রবার ভোররাতে আমার উপর হামলা করে। আমি শব্দ পেয়ে ঘর থেকে বাইরে বের হয়ে দেখি পাশের বাড়ীর কাদির ফকিরের ছেলে মানিক ফকিরসহ একাধিক লোকজন গাছ কর্তণ করছে। আমাকে দেখে ওরা দৌড়ে তাঁর নিজ বাড়ীতে প্রবেশ করে। সকালে গাছ কর্তনের ব্যাপারে জানতে চাইলে মালিক ও তার লোকজন আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

একই গ্রামের সুমি ও সোহাগ জানান, আমরা মানিককে নিয়ে কিছু বলতে চাইনা। সে খুব খারাপ মানুষ। কিছু বলে মরতে চাইনা। এর আগে সে আমাদের অহেতুক মারধর করেছে। আজো বিচার পাইনি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রবীণ শিক্ষক জানান, সে গ্রামের অনেক মানুষকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানী করেছে। আদম ব্যবসার নামে মানুষের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়ে আত্বসাতের অভিযোগ রয়েছে করেছে। তার অত্যাচারে এই এলাকার মানুষ অতিষ্ট।

কামারগাঁও গ্রামের ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম বলেন, আমি মানিকের ব্যাপারে কিছু বলতে চাইনা কারণ সে আমাকে অনেক হয়রানী করেছে। তাঁর হয়রানী শিকার হয়ে আজ আমি কোনঠাসা। এই এলাকার মানুষ হয়রানীর ভয়ে তার সম্পর্কে কোনো কথা বলতে চায়না। তিনি বলেন, কেটে ফেলা কলাগাছ ও সবজি বাগান গুলো দেখলে চোখে পানি চলে আসে। এ রকম কাজ করা ঠিক না। অভিযুক্ত মানিক বলেন, আমি এ কাজ করিনাই।