প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে কোটা প্রথা থাকছে না

সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৮ ৩:৪৮ দুপুর

নিউজ ডেক্সঃ

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির (৯ম থেকে ১৩তম গ্রেডে চাকরির ক্ষেত্রে) সরকারি চাকরিতে কোনো কোটা না রাখার সুপারিশ করেছে কোটা সংস্কার, বাতিল ও পর্যালোচনার জন্য গঠিত কমিটি।

এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে জমাও দিয়েছে সরকার গঠিত কমিটির প্রধান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

তিনি সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানানোর জন্য আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন এ কথা বলেন।

শফিউল আলম বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিয়ে আদালতের যে রায় আছে তা কোটা সংস্কার বা বাতিলে কোনো প্রভাব ফেলবে না বলে আইন কর্মকর্তারা মত দিয়েছেন। সরকারি চাকরিতে ৯ম থেকে ১৩ তম গ্রেড পর্যন্ত প্রবেশের ক্ষেত্রে কোটা রাখার বর্তমান যে নিয়ম রয়েছে তা উঠিয়ে দিতেই এই সুপারিশ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, কোটা নিয়ে রিপোর্ট প্রধানমন্ত্রীর কাছে আজ সাবমিট করে দিয়েছি। আমাদের ফাইন্ডিংস হল -নবম থেকে ১৩তম গ্রেড পর্যন্ত যে প্রাথমিক নিয়োগ হয়, সে নিয়োগে কোনো কোটা থাকবে না, কোনো কোটাই থাকবে না।

এর অর্থ হলো -কমিটির এই সুপারিশ সরকারের অনুমোদন পেলে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে আগের মতো আর ৫৬ শতাংশ পদ বিভিন্ন কোটায় সংরক্ষণের প্রয়োজন হবে না।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, তাদের এই সুপারিশ প্রধানমন্ত্রীর আনুষ্ঠানিক অনুমোদন পেলে মন্ত্রিসভায় উপস্থাপন করা হবে। মন্ত্রিসভার অনুমোদন পেলে আগামী মাসেই তা প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করা হতে পারে।