শেখ হাসিনা সবসময়ই দেশের কথা চিন্তা করেন-এম. ইসফাক আহসান

ডিসেম্বর ২৫, ২০১৮ ৭:২৭ দুপুর

জাকির হোসেন বাদশা, মতলব (চাঁদপুর) ॥

আওয়ামীলীগ নেতা, বিশিষ্ট শিল্পপতি ও আহসান গ্রুপের পরিচালক এম. ইসফাক আহসান বলেছেন, উন্নয়নের দিক দিয়ে বাংলাদেশের অতীতের সকল প্রধানমন্ত্রীদের চেয়ে শেখ হাসিনাই বেশি যোগ্য। কারণ শেখ হাসিনা জীবন বাজি রেখে বাংলাদেশের উন্নয়ন করছেন। এ ধরনের সাহসিকতা আগের কোন প্রধানমন্ত্রী দেখিয়েছেন বলে আমার জানামতে নেই। শেখ হাসিনা সবসময়ই দেশের কথা চিন্তা করেন। মঙ্গলবার বিকালে চাঁদপুর-২ আসনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাড. নুরুল আমিন রুহুলের নৌকা প্রতীকের পক্ষে মতলব উত্তর উপজেলার কলাকান্দা ইউনিয়নের লতরদি ইসহাকিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে আয়োজিত এক পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

এম. ইসফাক আহসান আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের যে উন্নয়ন করেছেন তা সত্যি বাংলাদেশের জন্য দৃষ্টান্ত। সারা বিশ^ আজ শেখ হাসিনার প্রশংসা করছে। কোনো কোনো দেশ তাকে ফলোও করছে। এসব সম্ভব হয়েছে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় থাকাতে। এবারের নির্বাচনেও আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসবে এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আরো এগিয়ে যাবে। তিনি বলেন, চাঁদপুর-২ আসনে শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থী অ্যাড. নুরুল আমিন রুহুল ভাইকে আমরা বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করবো।

ইসফাক কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিএনপি জামায়াতের নেতাকর্মীরা ভোটারদে দ্বারে এসে ভুল বুজাতে পারে। সেজন্য সকলকে সর্তক থাকবে হবে। ইত্যোমধ্যে মতলব উত্তরে বিএনপির নেতারা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও জ¦ালাও পোড়াও করার জন্য ছক আঁকছে। সেগুলো আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী দেখছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও সহযোগী সংগঠনের সকলকে সর্তক থাকতে হবে। তিনি আওয়ামীলীগ সরকারের বিগত দিনের উন্নয়ন তুলে ধরেন ও নৌকার পক্ষে ভোট চান।

কলাকান্দা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহজাহান মোল্লার সভাপতিত্বে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক প্রভাষক মেহেদী মাসুদের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, আওয়ামীলীগ নেতা আরিফ খান, উপজেলা আ’লীগের ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক নুরুল আমিন বোরহান প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন, কলাকান্দা ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি সুলতান মাহমুদ, যুবলীগের সাধারন সম্পাদক শামীম আহমেদ রিপন, সহ-সভাপতি শাহআলম সরকার, ৯নং ওয়ার্ড মেম্বার আল-আমিন, মহিলা মেম্বার তাছলিমা আক্তার, ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক শ্যামল, ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি আহসান সরকার’সহ নেতাকর্মী ও শত শত নারী ভোটার।