লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে পিঁয়াজের আবাদ

ডিসেম্বর ২৭, ২০১৮ ৪:৩৫ দুপুর

মুজাহিদ শেখ, শ্রীপুর(মাগুরা)

মসলা জাতীয় ফসল উৎপাদনে বিখ্যাত এলাকা হিসেবে পরিচিত মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের চলতি মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমিতে পিঁয়াজের আবাদ হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। কৃষকরা শীত উপেক্ষা করে পিয়াজের চারা রোপনে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন।

পিঁয়াজ রোপনকারী কৃষক নাসির মৃধা, মোঃমনিবুর বিশ্বাস,মোঃজাফর খান,অরবিন্দু বালা,আবু দাউদ, এনামুল হক,আক্কাস আলী জানান, শ্রীপুর উপজেলার, গয়শেপুর, আমলসার, শ্রীপুর,দারিয়াপুর,সব্দালপুর,নাকোল,কাদিরপাড়া,শ্রীকোল ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামের মাঠেই চলছে পিঁয়াজ চারা রোপনের মৌসুম।
প্রতিদিন ভোর থেকেই পিঁয়াজের চারা উত্তোলনের পর মাঠে জমিতে রোপনকরা হয়। প্রতিজন দিন মুজুরের ৩শত ৫০ টাকা থেকে ৪শত টাকা করে প্রদান করা হচ্ছে। সর্বোচ্চ বিকাল ৪টা পর্যন্ত পিঁয়াজ রোপনের কাজ করা হয়। তারপর আর কেউ মাঠে থাকে না।

১ কেজি দানার পিঁয়াজের চারা ৮-১০ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দিনমুজুর ও পিঁয়াজের চারার দাম বেশি হলেও কৃষকরা জমি খালি না রেখে পিয়াজ চারা রোপনে ব্যস্ত সময় পার করছে। অনেকেই পিঁয়াজ রোপন ইতিমধ্যেই শেষ করেছেন। তবে আগামী ১০-১৫দিনের মধ্যেই এ অঞ্চলে পিঁয়াজ চারা রোপন করা শেষ হবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

তারা আরো জানান, গত বছর পিঁয়াজের কাঙ্খিত মুল্য না পেলেও জমি ফেলে না রেখে লোকসান কাটিয়ে উঠতে পিয়াজ লাগানো শুরু করেছেন কৃষকরা।
উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মোঃ আতিকুল ইসলাম জানান, উপজেলাতে এ বছর সাড়ে ৩৬১০ হেক্টর জমিতে পিঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হলেও আবহাওয়ার অনুকুল পরিবেশ থাকার কারণে চলতি মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক জমিতে পিঁয়াজের চাষ হবে। এ অঞ্চলে লালতীর কিং, বারী পিঁয়াজ-১সহ বিভিন্ন জাতের পিঁয়াজের চাষ করা হয়।