ওয়ার্নারকে মিস করবে বিপিএল ৬ষ্ঠ আসর

January 18, 2019 1:11 pm

স্পোর্টস ডেক্সঃ

এলেন, দেখলেন, জয় করলেন। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ডেভিড ওয়ার্নারের প্রথম আসরের অভিজ্ঞতাকে এভাবেই বিশেষায়িত করা যায়। বল বিকৃতির ঘটনায় জাতীয় দল থেকে এক বছরের নিষেধাজ্ঞায় রয়েছেন। চলতি বছরের মার্চেই শেষ হয়ে যাবে সেই নিষেধাজ্ঞা। জাতীয় দলে ফেরার আদর্শ প্রস্তুতি মঞ্চ হিসেবে বেছে নিয়েছেন বিপিএলকে।

ফ্রাঞ্চাইজি দল সিলেট সিক্সার্সও সেই সুযোগ লুফে নিয়ে দলে ভেড়ায় এই অস্ট্রেলীয়কে। দলের ভার তুলে দিয়ে অধিনায়কও নির্বাচিত করা হয় ওয়ার্নারকে। ৫ ম্যাচে দুই জয় পেয়েছে সিলেট। দুটি জয়েই অবদান রেখেছেন অর্ধশতক হাঁকিয়ে।

তবে জয় কিংবা পয়েন্ট তালিকা দিয়ে বিচার করা যাবে না মাঠের ওয়ার্নারের এপ্রোচ। রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে সব শেষ ম্যাচে যা করলেন তা বিপিএল তথা ক্রিকেট ইতিহাসেই অনন্য নজির। ১৯তম ওভারে এসে ক্রিস গেইলের অফ স্পিনে ঠিক মতো সুবিধা করে উঠতে পারছিলেন না বামহাতি এই ব্যাটসম্যান। হঠাৎ স্টান্স বদলে হয়ে গেলেন ডানহাতি। ৬, ৪, ৪ হাঁকিয়েছেন স্বভাববিরুদ্ধ ব্যাটিং করেই। এমন ব্যাটিংয়ে ৩৬ বলে ৬১ রান করে মন ভরিয়েছেন কোটি ক্রিকেট সমর্থকদের।

শুধু ব্যাটিংই নয়, মাঠে তার ফিল্ডিং এবং দলের প্রতি ডেডিকেশন যেকোনো সতীর্থ খেলোয়াড়ের জন্য উজ্জীবনী প্রেরণা। লিটন-সাব্বিরের নাচ কিংবা তাসকিনের উইকেট নেয়ার পর উদযাপন সেই প্রেরণার প্রতিফলন। তরুণ আফিফ হাসানও সাহসী ব্যাটিং করেছেন তাকে সঙ্গী হিসেবে পেয়ে।

তবে সিলেটসহ সব বিপিএলের দর্শকদের জন্য দুঃসংবাদ নিয়ে এলো ৩২ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যানের কনুই ইনজুরি। মাঝ পথেই না বলে দিতে হচ্ছে বিপিএলকে। আর মাত্র দুটি ম্যাচ খেলেই ফিরে যাবেন নিজ দেশে। সিলেট পর্বেই শেষ দেখা যাবে সিলেটের জার্সি গায়ে।

যাওয়ার আগে আবেগে আপ্লূত হয়ে এই অজি ব্যাটসম্যান বলেন, ‘অসাধারণ একটা সময় কাটলো এবারকার বিপিএলে। দারুণ একটা দল আর ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে দারুন কিছু সুখস্মৃতি নিয়ে দেশে ফিরতে হবে। তবে, সিলেটের হয়ে শেষ ২ ম্যাচে মনে রাখার মতো পারফর্মেন্স করতে চাই।’

বাকি দুই ম্যাচ সিক্সার্সদেরকে কতটুকু দেবেন তা সময়ই বলে দিবে। তবে তার মতো একজন ক্রিকেটারের উপস্থিতি ঘরোয়া ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় এই আসরকে সমৃদ্ধ করেছে তা আর বলা অপেক্ষা রাখে না।

Please follow and like us: