তালায় ডায়াবেটিস সচেতনতায় মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯ ৯:৪২ সকাল

এমএম বাচ্চু,তালা(সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি:

ডায়াবেটিস প্রতিরোধ, চিকিৎসা, রোগের ক্ষতিকর প্রভাব ও রোগ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে তালার মাগুরা বাজারে ডায়াবেটিস সচেতনতা কর্মসূচী পালিত হয়েছে। তালা ডায়াবেটিক সমিতির আয়োজনে এবং ন্যাশনাল ডায়াবেটিস ফাউন্ডেশন’র সহযোগীতায় বৃহস্পতিবার বিকালে মাগুরা পীর শাহ জয়নুদ্দীন (র.) দাখিল মাদ্রাসা চত্বরে কর্মসূচীর অংশ হিসেবে মেডিকেল ক্যাম্প করা হয়।

মেডিকেল ক্যাম্পে এলাকার বিভিন্ন বয়সের শতাধিক ব্যক্তি বিনামূল্যে ডায়াবেটিস পরীক্ষার সুযোগ পান। পরীক্ষা করা ব্যক্তিদের মধ্যে প্রায় অর্ধেক মানুষের ডায়াবেটিস ধরা পড়ে। উক্ত ক্যাম্প পরিচালনাকালে এলাকার বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও আওয়ামীলীগ নেতা সুনীল দাশ, তালা রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারন সম্পাদক বি. এম. জুলফিকার রায়হান, মাগুরা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি আতাউর রহমান বিশ^াস, সাংবাদিক শেখ সিদ্দিকুর রহমান, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট মো. আলমগীর হোসেন, টেকনোলজিস্ট সহকারী আজমিরা খাতুন, অভিজিৎ হালদার ও শেখ আবু হাসান সহ সেবা নিতে আসার ১০৬জন ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত ক্যাম্পেইন বিষয়ে ডায়াবেটিস বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. মোহা. শেখ শহীদ উল্লাহ বলেন, সচেতনতার অভাবে যে কোনও বয়সের মানুষ ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত হতে পারে। বর্তমানে সারা বিশে^র ন্যায় তালা উপজেলা সহ আশপাশের উপজেলায়ও আশংকাজনক হারে এই রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। ডায়াবেটিস এমন একটি শারীরিক অবস্থা যা সারা জীবনের জন্যে বয়ে বেড়াতে হয় এবং এর কারণে প্রতি বছর আমাদের দেশে বহু মানুষ মারা যায়।

ডায়াবেটিস সচেতনতা সম্পর্কে ডা. শেখ শহীদ উল্লাহ বলেন, শরীর যখন রক্তের সব চিনিকে (গ্লুকোজ) ভাঙতে ব্যর্থ হয়, তখনই ডায়াবেটিস হয়। এই জটিলতার কারণে মানুষের হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোক হতে পারে। এমনকি মানুষ অন্ধ হয়েও যেতে পারে। তাছাড়া, এই রোগে আক্রান্তদের কিডনি নষ্ট হয়ে যেতে পারে এবং অনেক সময় তাদের শরীরের নিম্নাঙ্গ কেটে ফেলতে হয়।

এই রোগ সম্পর্কে অধ্যাপক ডা. শেখ শহীদ উল্লাহ জানান, আমরা যখন কোন খাবার খাই তখন আমাদের শরীর সেই খাদ্যের শর্করাকে ভেঙে চিনিতে (গ্লুকোজ) রুপান্তরিত করে। অগ্ন্যাশয় থেকে ইনসুলিন নামের যে হরমোন নিসৃত হয়, সেটা আমাদের শরীরের কোষগুলোকে নির্দেশ দেয় চিনিকে গ্রহণ করার জন্যে। এই চিনি কাজ করে শরীরের জ্বালানী বা শক্তি হিসেবে। শরীরে যখন ইনসুলিন তৈরি হতে না পারে অথবা এটা ঠিক মতো কাজ না করে তখনই ডায়াবেটিস হয় এবং এরফলে রক্তের মধ্যে চিনি জমা হতে শুরু করে।

ডায়াবেটিসের এতো ঝুঁকি থাকার পরেও এই রোগে আক্রান্ত অর্ধেকেরও বেশি মানুষ রোগটি সম্পর্কে সচেতন নয় জানিয়ে তিনি বলেন, জীবন যাপনের ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম নীতি মেনে চললে অনেক ক্ষেত্রে ডায়াবেটিসকে প্রতিরোধ করা সম্ভব।
উল্লেখ্য, ন্যাশনাল ডায়াবেটিস ফাউন্ডেশন’র সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহা. শেখ শহীদ উল্লাহ ন্যাশনাল ডায়াবেটিস ফাউন্ডেশনের সহযোগীতায় প্রতি শুক্রবার বিকালে তালা ডায়াবেটিক সমিতির কার্যলয়ে ডায়াবেটিস রোগীদের সেবা প্রদান করেন। এখানে দিন দিন সেবা নিতে আসা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং রোগীরা কাংখিত সফলতা পাচ্ছে।