আগামী বছর আত্মপ্রকাশ ঘটবে বিশ্বের সর্ববৃহৎ ক্রিকেট স্টেডিয়ামের

সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯ ৪:০৯ দুপুর

|| ডেস্ক রিপোর্ট ||

ভারতের নয়া দিল্লিতে অবস্থিত মোতেরা ক্রিকেট স্টেডিয়ামের কাজ ৯০ শতাংশ শেষ হয়েছে বলে জানা গেছে। আগামী বছরের জানুয়ারি মাসের মধ্যেই স্টেডিয়ামটির কাজ পুরোপুরি শেষ হবে। একই সঙ্গে আত্মপ্রকাশ ঘটবে বিশ্বের সর্ববৃহৎ ক্রিকেট স্টেডিয়ামের।

এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়াম অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড যা এমসিজি নামে পরিচিত। ৯০ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন এমসিজিকে এবার ছাড়িয়ে যাচ্ছে মোতেরা ক্রিকেট স্টেডিয়ামটি। এক লাখ ১০ হাজার দর্শক একত্রে বসে খেলা দেখতে পারবেন এখানে।

১৯৮২ সালে প্রথমবার মোতেরা স্টেডিয়ামটি বানানো হয়েছিল। এরপর ২০১৫ সালে আয়তন এবং ধারণ ক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য এটি ভেঙে ফেলা হয়। পরবর্তীতে স্টেডিয়ামটির নকশা অঙ্কন করেন অস্ট্রেলিয়ার স্থপতিরা।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উদ্যোগে ২০১৭ সালে শুরু হয় দিল্লির এই স্টেডিয়াম নির্মাণের কাজ। দুই বছরের মধ্যে এটি পুরোপুরি শেষ করার নির্দেশ দেন মোদি। গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েসনের সভাপতি অমিত শাহ স্টেডিয়ামটির ব্যাপারে বলেন, ‘এই প্রজেক্টটি আমাদের প্রধানমন্ত্রীর একটি ভিশন। তাঁর স্বপ্ন ছিল গুজরাট এবং ভারতে বিশ্বমানের ক্রিকেট অবকাঠামো তৈরি করা। এই খেলাটি পুরো দেশজুড়ে ব্যাপক উদ্দীপনা সঞ্চার করেছে।’

নির্মাণ কাজ শেষ হলে এই মোতেরা ক্রিকেট স্টেডিয়ামটি হবে ভারতের প্রথম ক্রিকেট স্টেডিয়াম যেখানে ব্যবহৃত হবে লেডফ্লাড লাইট। এছাড়াও এখানে থাকবে ৭৬টি কর্পোরেট বক্স, চারটি ড্রেসিং রুম, একটি ক্লাব হাউজ এবং অলিম্পিক-সাইজ সুইমিং পুল।

স্টেডিয়ামটি নির্মাণ করতে সবমিলিয়ে খরচ হচ্ছে ৭০০ কোটি রুপি। অর্থাৎ ৯ কোটি ৭৪ লাখ ৯৯ হাজার ১৪৩ মার্কিন ডলার। অপরদিকে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ড নির্মাণ করতে খরচ হয়েছিল ৪৬ কোটি মার্কিন ডলার।