জামায়াতের জলিল মাদবর এখন ফতুল্লা ইউপি আ’লীগের সহ-সভাপতি!

অক্টোবর ২৬, ২০১৯ ১:২২ দুপুর

খোকন প্রধান, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ

জামায়াতের আঃ জলিল মাদবর এখন ফতুল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি পদে! অবিশ্বাস্য হলেও এটিই সত্যি যে স্বাধীনতা বিরোধী দল জামায়াতে ইসলামীর একজন দায়িত্বশীল নেতা যিনি ঐ সংগঠনে নিয়মিত চাদাঁ দিতেন এবং সংগঠনের প্রতিটি কর্মকান্ডে সক্রিয় ছিলেন তিনি আজ স্বাধীনতার নেতৃত্বদানকারী দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ফতুল্লা ইউনিয়ন শাখার সহ-সভাপতি পদে অধিষ্ঠিত যা সত্যিই লজ্জা জনক ব্যাপার প্রকৃত আওয়ামী লীগারদের কাছে। স্হানীয় একাধিক বয়স্ক ব্যক্তিদের অভিযোগ আঃ জলিল মিয়ার বাড়ী ঢাকা জেলার রুহিতপুর গ্রামে স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে জলিলের বিতর্কিত ভূমিকা থাকায় নাকি দেশ স্বাধীন হওয়ার পরে স্হানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের রোষানলে তাকে পড়তে হয় এবং এক পর্যায়ে আঃ জলিল রাতের আধাঁরে পালিয়ে চলে আসেন ফতুল্লার দাপা শৈলকুড়িয়া এলাকায় আশ্রয় নেন ইয়াছিন মাদবরের বাড়ীতে।

No photo description available.

সুত্রে প্রকাশ এরপরে জামায়াত নেতা আঃ জলিল মাদবর বাড়ীতে বিয়ে করে শশুরের বংশের উপাধি “মাদবর ” নিজের নামের পিছনে যুক্ত করেন এবং ঘর জামাই থেকে ধীরে ধীরে শৈলকুড়িঁয়া এলাকায় নিজের অবস্থান শক্ত করে ফেলেন । আঃ জলিল মাদবর ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমান সপরিবারে শাহাদাৎ বরন করার পরে দাপা শৈলকুড়িঁয়া এলাকায় স্বাধীনতা বিরোধী দল জামায়াত কে সু-প্রতিষ্ঠিত করার কাজে সক্রিয় হয়ে উঠেন বায়তুল মাল নামে তার অনুসারী সহ স্বাধীনতা বিরোধী দের কাছ থেকে চাদাঁ উওোলন করতেন এবং তিনি নিজেও নিয়মিত ভাবে চাদাঁ দিয়ে ফতুল্লায় জামায়াত কে সংগঠিত করার কাজে নেতৃত্ব দিতেন( আঃ জলিল মাদবরের দেওয়া চাদাঁর রশিদ ১৯৯৪/৯৫ সালের দুটি কপি উল্লেখ্য করা হয়েছে তার ছবির পাশে) । এলাকা বাসীর সুত্রে জানা গেছে ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র্রীয় ক্ষমতায় আসার কয়েক বছর পরে স্হানীয় কয়েক আওয়ামী লীগের নেতাদের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলেন এবং তাদের নানা বিধ সুযোগ সুবিধা দিয়ে আওয়ামী লীগার হয়ে যান জামায়াতের নেতা আঃ জলিল মাদবর। এরপর থেকে শুরু স্বাধীনতা বিরোধী দলের নেতা জলিল মাদবরের পথচলা পরবর্তীতে তিনি ফতুল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি পদে পেয়ে যান এবং আগামীতে তার রাজনৈতিক অবস্থান আরো শক্তিশালী করতে আঃ জলিল মাদবর তার নিজের বলয়ের ব্যক্তিদের এখন আওয়ামী লীগের সদস্য করে নিয়ে নিয়মিত ভাবে দাপা ইদ্রাকপুরের শৈলকুড়িঁয়া এলাকায় গোপন বৈঠক করে যাচ্ছেন। নাম না প্রকাশের শর্তে শৈলকুড়িঁয়া এলাকার একাধিক ত্যাগী ও পরীক্ষিত আওয়ামী লীগের কর্মীদের অভিযোগ জামায়াত নেতা আঃ জলিল মাদবর জামাত-বিএনপি সমর্থিত ব্যক্তিদের এখন আওয়ামী লীগের স্হানীয় পর্যায়ে সদস্য করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে । তাদের অভিমত দলীয় প্রধান জন নেত্রী শেখ হাসিনা যখন জামাত-বিএনপি থেকে আসা অনুপ্রবেশ কারী দের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন তখন কিভাবে ফতুল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি পদে চিহৃিত জামায়াত নেতা আঃ জলিল মাদবর স্বপদে বহাল থাকেন এবং পূনরায় আওয়ামী লীগ তার অবস্হান আরো শক্তিশালী করতে স্বাধীনতা বিরোধী মনোভাবের ব্যক্তিদের দাপা এলাকায় আঃলীগের সদস্য বানিয়ে আওয়ামীলীগে অনুপ্রবেশ করায় … (চলমান)