রংপুরের স্বপ্ন ভঙ্গ, শেষ চারে ঢাকা

January 8, 2020 11:21 pm

স্পোর্টস ডেক্সঃ

ঢাকা প্লাটুন করল ১৪৫ রান। খুব বেশি রান নয়। কিন্তু সেই রান তাড়া করতে নেমে রংপুর রেঞ্জার্স গুটিয়ে গেল ৮৪ রানে। প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন ম্যাচ ঢাকা জিতল ৬১ রানের বিশাল ব্যবধানে। আর বিশাল এই জয় নিয়ে ঢাকা প্লাটুন উঠে এলো শেষ চারে। অন্যদিকে রংপুর রেঞ্জার্সের জন্য বঙ্গবন্ধু বিপিএলের যাত্রা এখানে শেষ। অবশ্য একটি ম্যাচ তাদের বাকি আছে। কিন্তু সেই ম্যাচের ফল তাদের আর কোনো কাজে লাগবে না!

মিরপুরের উইকেটে ১৪৫ রান তেমন বড় কোনো রান নয়। কিন্তু মাঝারি মানের সেই রান তাড়া করতে নেমে রংপুর রেঞ্জার্স যে ব্যাটিং করল সেটা পুরো রং চটা! পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার আগেই রংপুরের ৪ উইকেট নেই!

ইনিংসের প্রথম ওভারেই দুই উইকেট হারায় রংপুর। স্পিনার মেহেদি হাসান রানা তার প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে ফেরান ওপেনার নাঈম হাসানকে। শেষ বলে এলবিডব্লু করেন শেন ওয়াটসনকে। রিভিউ নিয়েও রক্ষা হয়নি ওয়াটসনের। গোল্ডেন ডাক নিয়ে ডাগআউটে ফিরেন রংপুর অধিনায়ক। শুরুর সেই ধাক্কা গোটা ম্যাচে আর সামাল দিতেই পারেনি রংপুর। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় তারা। কোনো ব্যাটসম্যানই টিকে থাকতে পারেননি। বেশিরভাগ ব্যাটসম্যান বাজে শটস খেলে আউট হন।

ঢাকা প্লাটুনের তিন স্পিনার মেহেদি হাসান রানা ও দুই পাকিস্তানি ফাহিম আশরাফ এবং শাদাব খানের স্পিন সামাল দিতেই পারেনি রংপুর। এই তিন স্পিনারের মধ্যে সেরা পারফর্মার মেহেদি হাসান। এই তরুণ ১৩ রানে পান তিন উইকেট। দুই পাকিস্তানি শিকার করে দুটি করে উইকেট। ঢাকার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার জন্যও এই ম্যাচ বোলার হিসেবে চমৎকার কেটেছে। ৪ ওভারে মাত্র ১৮ রান খরচায় ২ উইকেট পান মাশরাফি।

১৫.৩ ওভারে মাত্র ৮৪ রানে গুটিয়ে যাওয়া রংপুর রেঞ্জার্সের ১০ ব্যাটসম্যানের মধ্যে সাতজনই সিঙ্গেল ডিজিটে আউট!

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ঢাকা প্লাটুন: ১৪৫/৯ (২০ ওভারে, তামিম ৪০, এনামুল ১১, শাদাব ৩১*; মুস্তাফিজ ৩/৩৪, তাসকিন ৩/৩২ ও নবি ২/২১)।

রংপুর রেঞ্জার্স: ৮৪/১০ (১৫.৩ ওভারে, দেলপোর্ট ২০, আল-আমিন ২৩, নবি ১২; মেহেদি হাসান ৩/১৩, মাশরাফি ২/১৮, ফাহিম ২/২৬ ও শাদাব ২/১৪)।

ফল: রংপুর রেঞ্জার্স ৬১ রানে জয়ী।

ম্যাচ সেরা: শাদাব খান।

Please follow and like us: