ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে বৈধ প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা

জানুয়ারি ১০, ২০২০ ১২:১১ দুপুর

নিউজ ডেক্সঃ

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে বৈধ প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা। নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী এখন থেকে পুরোদমে প্রচারে নামতে পারবেন প্রার্থীরা। ইতোমধ্যে প্রার্থীদের সমর্থকরা প্রচার শুরু করেছেন।

শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়। রাজধানীর এনআইএলজি মিলনায়তনে ঢাকা উত্তর সিটির এবং গোপীবাগে সাদেক হোসেন খোকা কমিউনিটি সেন্টারে ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা। এরপরই শুরু হয় আনুষ্ঠানিক প্রচার।

যদিও বিধি লঙ্ঘন করে আগে থেকেই বিভিন্ন প্রার্থী প্রচার চালাচ্ছেন। এ নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আতিকুলের বিরুদ্ধে বিএনপির তাবিথ আউয়াল আর শেখ ফজলে নূর তাপসের বিরুদ্ধে বিএনপির ইশরাক হোসেন লিখিত অভিযোগ করেন।

এছাড়াও অভিযোগ ছিল সিটি নির্বাচনের আচরণ বিধির ২২(১) লঙ্ঘন করে ‘সরকারি সুবিধাভোগী অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি এই নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবেন না। তবে এ বিধি লঙ্ঘন করে সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনকে নিয়ে নির্বাচনী ক্যাম্প উদ্বোধনের অভিযোগ উঠে মেয়র প্রার্থী আতিকুলের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে তাকে শোকজ করা হলেও জবাবে তিনি বলেছেন সেটি ছিল মিলাদের আয়োজন। আর সর্বশেষ গতকাল এমপিদের প্রচারে অংশ নেয়া বন্ধ করে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা ও দুই রিটার্নিং কর্মকর্তাকে ইউনোট দেন নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার।

এদিকে গতকাল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে কেউই প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেননি। ফলে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ১৩ প্রার্থী চূড়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন। তবে দুই সিটিতে সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদ থেকে ২৬৮ জন প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেছেন। এতে সংরক্ষিত ওয়ার্ডসহ ১৭২ পদের বিপরীতে ৭৪৫ জন কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সব মিলিয়ে ভোটের চূড়ান্ত লড়াইয়ে থাকলেন ৭৫৮ প্রার্থী।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের মধ্যে ঢাকা উত্তরের মো. আতিকুল ইসলাম উত্তরা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করে প্রচারে নামবেন। আর ঢাকা দক্ষিণে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস ডেমরার আমুলিয়া মডেল টাউন থেকে প্রচার শুরু করবেন।

অপরদিকে বিএনপি প্রার্থীদের মধ্যে ঢাকা উত্তরে তাবিথ আউয়াল উত্তরা সাত নম্বর সেক্টরে জুমার নামাজ আদায় করার পর প্রচার শুরু করবেন। দক্ষিণে প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন প্রতীক পাওয়ার পর প্রয়াত বাবা সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার কবর জিয়ারত করে প্রচারে নামবেন।

উত্তরে চূড়ান্ত লড়াইয়ে মেয়র পদে আছেন- আওয়ামী লীগের মো. আতিকুল ইসলাম, বিএনপির তাবিথ আউয়াল, প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দলের (পিডিপি) শাহীন খান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের শেখ মো. ফজলে বারী মাসউদ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) মো. আনিসুর রহমান দেওয়ান এবং বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির আহাম্মদ সাজেদুল হক।

দক্ষিণ সিটিতে মেয়র পদে লড়ছেন- আওয়ামী লীগের শেখ ফজলে নূর তাপস, বিএনপির ইশরাক হোসেন, জাতীয় পার্টির সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আব্দুর রহমান, এনপিপির বাহারানে সুলতান বাহার, গণফ্রন্টের আব্দুস সামাদ সুজন ও বাংলাদেশ কংগ্রেসের আকতারুজ্জামান ওরফে আয়াতুল্লাহ।

নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল ৯ জানুয়ারি। ১০ জানুয়ারি প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ, আর ভোটগ্রহণ করা হবে আগামী ৩০ জানুয়ারি।