ভোটারদের সাংবিধানিক ও নৈতিক অধিকার প্রয়োগের আহ্বান দুই প্রার্থীর

March 6, 2020 5:34 pm
Spread the love

নিউজ ডেক্সঃ

সাম্প্রতিক নির্বাচনগুলোতে কম ভোটার উপস্থিতি ভাবাচ্ছে শেখ ফজলে নূর তাপসের ছেড়ে দেয়া ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনের প্রার্থীদের। বিষয়টি জাতীয় উদ্বেগের বলে মনে করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী। আর ভোটারদের কেন্দ্রবিমুখ হওয়ার জন্য সরকারের ওপর দায় চাপাচ্ছেন বিএনপি প্রার্থী। ভোটারদের সাংবিধানিক ও নৈতিক অধিকার প্রয়োগের আহ্বান দুই প্রার্থীরই।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচারণায় প্রার্থী-সমর্থকদের উৎসাহ-উদ্দীপনা আর ব্যাপক অংশগ্রহণ ছিল লক্ষণীয়।
কিন্তু তার উল্টো চিত্র দেখা যায় ভোটের দিন। ঢাকা দক্ষিণে ২৯ শতাংশ আর উত্তরে ভোট পড়েছে মাত্র ২৫ শতাংশ।
সম্প্রতি অন্যান্য নির্বাচনেও ভোটারদের অনীহা চোখে পড়েছে। জানুয়ারিতে চট্টগ্রাম ৮ আসনের উপ নির্বাচনে এক-চতুর্থাংশ ভোটারও কেন্দ্রে যাননি।

এ অবস্থায় ঢাকা ১০ আসনের উপনির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি ভাবাচ্ছে প্রধান দুই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে। এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, এটা দেশ ও গণতন্ত্রের জন্যই ভালো নয়। সবাইকে যার যার দায়িত্ববোধ থেকে ভোট কেন্দ্রে আসতে হবে। আমরা চেষ্টা করব জনগণের কাছে যেতে। যাতে সবাই কেন্দ্রমুখী হয়।

বিএনপি প্রার্থী শেখ রবিউল আলম বলেন, সরকার ভোট ব্যবস্থাকে অকার্যকর করে ফেলেছে। তাই ভোট নিয়ে সবার অনীহা এখন। মানুষকে ভোট কেন্দ্রে আসতে বলতে হবে। তবে ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে উৎসাহিত করা রাজনৈতিক দলগুলোরই দায়িত্ব বলে মনে করেন দুই প্রার্থী। আর সেক্ষেত্রে তারা তৎপর থাকবেন বলেও জানালেন।

ঢাকা দক্ষিণে নির্বাচিত মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের পদত্যাগের কারণে শূন্য হওয়া ঢাকা ১০ আসনের উপনির্বাচন হতে যাচ্ছে আগামী ২১ মার্চ।