বৃটেনে হিজাব পরা প্রথম মুসলিম নারী বিচারক হিসেবে নিয়োগ পেলেন

May 29, 2020 1:06 pm

আন্তর্জাতিক ডেক্সঃ

বৃটেনে এই প্রথম হিজাব পরা কোন মুসলিম নারী বিচারক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। তার নাম রাফিয়া আরশাদ। তাকে গত সপ্তাহে মিডল্যান্ডস সার্কিটে ডেপুটি ডিস্ট্রিক্ট জজ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। রাফিয়া বলেছেন, মাত্র ১১ বছর বয়স থেকেই তিনি আইন পেশায় ক্যারিয়ার গড়ার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন। প্রায় ৩০ বছর পরে এখন তিনি কেবল একজন প্রখ্যাত ব্যারিস্টারই নন, একজন হিজাব পরা মুসলিম বিচারকও।

তিন সন্তানের জননী রাফিয়া আরশাদ বলেছেন, নিত্যদিন তাকে বৈষম্য ও কুসংস্কারের মুখোমুখি হতে হয়। মিডল্যান্ডভিত্তিক এই বিচারক বড় হয়েছেন ওয়েস্ট ইয়র্কশায়ারে। কর্মজীবনে তিনি একদিনের কথা খুব বেশি স্মরণ করতে পারেন। ওই সময়ে ইনস অব কোর্ট স্কুল অব ল’তে ২০০১ সালে স্কলারশিপে সাক্ষাতকার দিতে যান। কিন্তু নিজের পরিবারের সদস্যরা তাকে হিজাব পরতে মানা করেন। তারা তাকে বলেছিলেন, তুমি হিজাব পরে গেলে স্কলারশিপ পাওয়ার সুযোগ কমে যাবে। কিন্তু সেই চাপের কাছে মাথা নত করেননি রাফিয়া আরশাদ।

তিনি বলেন, আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম হেডস্কার্ফ পরবো। আমি পরলাম। এবং সাক্ষাতকারে সফল হলাম। আমাকে একটি স্কলারশিপ দেওয়া হলো। আমার মনে হয় আমার ক্যারিয়ারে এটাই ছিল প্রথম কোনো বড় পাওয়া। এটা সত্য যে যেকেউ চেষ্টা করলে এটা অর্জন করতে পারেন।

রাফিয়া আরশাদ ২০০৪ সালে যোগ দেন সেইন্ট মেরিস ফ্যামিলি ল চেম্বারস-এ। গত ১৫ বছর ধরে তিনি প্রাইভেট ল চিলড্রেন, জোরপূর্বক বিয়ে, নারীদের খৎনাপ্রথা, ইসলামিক আইন বিষয়ক ইস্যু নিয়ে চর্চা করেছেন। ইসলামিক ফ্যামিলি ল’ -এর ওপর একটি বইও লিখেছেন।

Please follow and like us: