ডিসেম্বরের মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হবে ৬৭ কোটি ভারতীয়!

May 30, 2020 1:53 pm

নিউজ ডেক্সঃ

লকডাউন উঠে গেলেই ভারতে করোনা সংক্রমণ পুনরায় বাড়বে। সেইসঙ্গে গোষ্ঠী সংক্রমণের পর্যায়ে পৌঁছে যাবে বলে মনে করছেন দেশটির ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ মেন্টাল হেলথ অ্যান্ড নিউরোসায়েন্স (Nimhans)-এর ডাক্তাররা।

নিমহ্যান্সের ধারণা, ২০২০ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে ভারতের মোট জনসংখ্যার অর্ধেক করোনার শিকার হবে। বছর শেষে প্রাণঘাতী ভাইরাসে ৬৭ কোটি ভারতীয় আক্রান্ত হবেন!

তবে এই ৬৭ কোটি ভারতীয়ের মধ্যে ৯০ শতাংশই জানতে পারবেন না তারা করোনা পজিটিভ। কারণ, বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই সংক্রমণের বাহ্যিক কোনও লক্ষণ বা উপসর্গ দেখা যাবে না। মাত্র ৫ শতাংশের অবস্থা সংকটজনক হবে। তাদেরই হাসপাতালে ভর্তি করতে হবে।

হিসেব অনুযায়ী, ৬৭ কোটির ৫ শতাংশ যদি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন, তা হলেও সংখ্যাটা গিয়ে পৌঁছবে প্রায় তিন কোটিতে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, জুলাইয়ের শেষ থেকেই ভারতে করোনা সংক্রমণের হার কমতে থাকবে।

অন্যদিকে আন্তর্জাতিক রেটিং এজেন্সি স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড পুওরের মতে, সেপ্টেম্বরের আগে ভারতে করোনা সংক্রমণ শীর্ষে পৌঁছবে না।

২০১৯ সালের মার্চের রিপোর্ট অনুযায়ী, গ্রামীণ ভারতে মাত্র ১৬ হাজার ৬১৩টি প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র রয়েছে। এর মধ্যে ২৪ ঘণ্টা পরিষেবা মেলে ৬ হাজার ৭৩৩টি স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। এই স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলির অধিকাংশতেই আবার চারটির বেশি বেড নেই। ফলে, গ্রামীণ ভারতে করোনা সংকট কিন্তু ভয়ানক আকার নিতে পারে।

এই হিসাবে কোভিড আক্রান্তদের চিকিত্সার জন্য ভারতের হাসপাতালগুলিতে ১ লক্ষ ৩০ হাজার বেড রয়েছে। ফলে, বেডের সঙ্কুলান না হওয়ায় হাসপাতালগুলি করোনা আক্রান্তদের ভর্তি নিতে পারবে না। ইতিমধ্যেই কিছু রাজ্যে এই সমস্যা দেখা দিয়েছে। আগামীতে এই সংকট বাড়বে বলে মনে করছে নিমহ্যান্স। ফলে আসলেই যদি ৬৭ কোটি ভারতীয় করোনায় আক্রান্ত হন তাহলে তাদের চিকিৎসা দেওয়া চিন্তার কারণ হবে দেশটির জন্য।

সূত্র: এই সময়

Please follow and like us: