নবীগঞ্জে লন্ডন প্রবাসীর মেয়ের জামাই উপর মামলা করে বিপাকে বাদিনী

June 4, 2020 4:00 pm

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ)প্রতিনিধি

নবীগঞ্জে লন্ডন প্রবাসীরর বিরুদ্ধে মামলা করে বিপাকে পড়েছেন ভুক্তভোগি বাদীনীর পরিবার। মামলা তুলে নিতে বিভিন্ন রকম হুমকি আসছে। এমনই অভিযোগ করেছেন নবীগঞ্জ উপজেলার পানিউমদা ইউনিয়নের বড়চর গ্রামের মৃত জমির আলীর স্ত্রী আরিছা বেগম। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দাউদপুর ইউনিয়নের মোগলাবাজার থানার সুড়িগাও গ্রামের মৃত আছদ্দর আলীর লন্ডন প্রবাসী পুত্র বিয়ে পাগল আবুল হোসেন বিয়ে করেন আরিছা বেগমের বড় মেয়ে সীমা আক্তারকে।

বিয়ের পর আবুল হোসেনের লোভ লালসার শিকার হন তার শালী (সীমা আক্তারের বোন) স্কুল পড়–য়া ছাত্রী সালমা আক্তার। শুশুর বাড়ীতে আসার যাওয়ার সুবাধে কু নজর পড়ে নারী লোভি আবুল হোসেনের তার যুবতী শালীর উপর। তাকে সিলেটে নিয়ে পড়ানোর কথা বলে বিভিন্ন পন্য সামগ্রী কিনে দেয়ার কথা বলে কু প্রস্তাব দিতে থাকে। সালামা তাতে রাজি না হওয়ার পর চলতি বছরের ২৪ এপ্রিল দুপুর ১২ টায় নির্জন বাড়িতে একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে শালী সালমা আক্তারকে। নিজের ধর্ষণের চিত্রটি মোবাইল ফোনে ধারণ করেন দুলা ভাই আবুল হোসেন। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে আবুল হোসেনের শাশুড়ী আরিছা বেগম (২১ মে) বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় আবুল হোসেনকে আসামী করে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রেক্ষিতে (২৩ মে) নবীগঞ্জ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে আবুল হোসেনকে গ্রেফতার করে। আবুল হোসেন গ্রেফতারের পর থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে মামলা তুলে নিতে বাদীনীকে হুমকি দিয়ে আসছে আবুল হোসেন ভাগিনা বাতিজারা। এমনকি মোবাইল ফোনে ধারণ করা ধর্ষণ ভিডিও ও জোর কিছু বিবস্্র ভিডিও ক্লিপ ও ছবি ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখানো হচ্ছে প্রতিনিয়িত।বিষয়টি বলছেন মামলার বাদী আরিছা বেগম। আরিছা বেগম আরো জানান তিনি এবং তার পরিবারের লোকজন মামলা দায়েরের পর থেকে নিরাপত্তাহীনতা ভুগছেন আবুল হোসেনের আতœীয় স্বজন ও তার ভাড়াটিয়া লোকজনের বিভিন্ন সময় হুমকি প্রদান করাচ্ছেন। তিনি প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Please follow and like us: