এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ করলে যেসব সুবিধা পাবে শিক্ষার্থীরা

July 8, 2020 8:52 am

মোঃ আসাদুল্লাহ মাসুমঃ

এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আয় সরকারি কোষাগারে নিয়ে জাতীয়করণ করলে প্রতি মাসে উদ্বৃত্ত থাকবে ৪২৫ কোটি টাকা। বেশি লাভবান হবে গ্রামের অভিভাবকগণ। মাত্র ১৫ টাকা বেতনে পড়াশুনা করবে ছাত্র-ছাত্রী।

এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আয় সরকারি কোষাগারে জমা নিয়ে জাতীয়করণ করলে সরকারের আয় উদ্বৃত্ত হবে ৪২৫ কোটি টাকা

এমপিওভুক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তথা স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা জাতীয়করণ করা হলে সরকারের বার্ষিক আয় হবে চারশত পঁচিশ কোটি টাকা।

দেখে নিন হিসেবটি:

বাংলাদেশে মোট এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যাঃ

* কলেজঃ ৪০০৭ টি।
*মাধ্যমিক বিদ্যালয়ঃ১৯৮৪৮ টি।
*মাদ্রাসাঃ ৯৩৪১ টি।
*কারিগরিঃ ৫৮৯৭ টি।
*সর্বমোটঃ ৩৯০৯২ টি।

মোট শিক্ষকঃ

*কলেজঃ ১১৭৩৩৭ জন,
*মাধ্যমিকঃ২৪৩৫৫৩ জন,
*মাদ্রাসাঃ১১৩৩৬৮ জন,
*কারিগরিঃ৩২৩৭৮জন,
**সর্বমোট শিক্ষকঃ ৫০৬৬৩৭ জন।

শিক্ষার্থীর সংখ্যাঃ

*কলেজঃ ৩৭,৬৭,৭৮৪ জন,
*মাধ্যমিকঃ ৯১,৬০,৩৬৫ জন,
*মাদ্রাসাঃ ২৪,৬০,৩০৫ জন,
*কারিগরিঃ৮,৭৫,২৭০ জন।

সর্বমোট শিক্ষার্থী সংখ্যাঃ ১,৬২,৬৩,৭২৪ জন। প্রতি শিক্ষার্থী মাসিক ১৫ টাকা হিসাবে বেতন দিলে বার্ষিক আয় হবে ১৬২৬৩৭২৪*১৫*১২= ৭০০ কোটি টাকা। ভর্তি/ সেশন ফিস শিক্ষার্থী প্রতি গড়ে ৩০০ টাকা নিলে আয় হবে ঃ ১৬২৬৩৭২৪*৩০০= ৮০০ কোটি টাকা। সরকার বর্তমান এমপিও বাবদ বার্ষিক দেয়ঃ ১৪২৫ কোটি টাকা। জাতীয়করণ করলে বার্ষিক লাগবে ২৫০০ কোটি টাকা

সরকারের বার্ষিক টাকা আয় হবেঃ (১৪২৫+৮০০+৭০০)কোতি=২৯২৫ কোটি – ২৫০০ কোটি = ৪২৫ কোটি টাকা।

এমপিওভূক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আয় সরকারি কোষাগারে জমা নিয়ে সকল এমপিওভূক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ২০২০ মুজিব বর্ষেই জাতীয়করণ ঘোষণা করার প্রস্তাব সরকারের নিকট উপস্থাপন করছি।

Please follow and like us: