বনশ্রীতে ভূতের ভয়ের গল্প

July 10, 2020 10:56 am

নিজাম উদ্দিন মুন্সী

সত্যি, ভূতের থাবার ভয় আছে বনশ্রীতে।। ব্যক্তিগত মতামত

আমি দা হাতে নিয়ে কী করছি? ভূতকে ধমকালাম। ১০ মিনিট আগে ভূত আমাকে ভয় দেখাতে এসেছিল। পারেনি। টের পেয়ে গেছি। মায়ের কথামতো দা ধরে বসে আছি। সাবধান হয়ে গেছি, তাই প্রস্তুতি নিয়েছি।

ঘটনাটি এমন: গতকাল (রোববার) রাত থেকে চার রুমের বাসায় আমি একা। গতকাল রাতেও ভূতের প্রচেষ্টা আমি টের পেয়েছিলাম এবং সারারাত সব লাইট জ্বালিয়ে বসে ছিলাম। এ জন্য আজ ( সোমবার) অফিসে যেতে পারিনি, সন্ধ্যা পর্যন্ত ঘুমিয়েছি। সোমবার রাত ১০ টার দিকে বাইরে থেকে বাসায় এসে আমি আমার রুমের লাইট জ্বালিয়েছি, গিন্নির রুমের লাইট জ্বালিয়েছি। নয়নের রুমের লাইট নেভানো, এবং ড্রইং রুমেরও। রান্না করে সাড়ে বারোটায় ভাত খেয়ে বিছানায় শুয়ে শুয়ে ফেসবুক দেখছি, লিখছি। রাত ২টার দিকে সজিব খান নামের এক ফেসবুক বন্ধুর ভূত দেখার কাহিনী পড়ে কমেন্টস করেছি। বলেছি, সাথে আগুন রাখবেন, মনে হলেই আগুন ধরাবেন। সে আজ পূর্বাচল রাস্তায় রাত ১০টায় বাইক চালিয়ে আসার সময় ভূত দেখেছে।

যাইহোক, এরপর বাথরুমে গেলাম। বাথরুম সেরে আমার রুমে ফিরছি, দেখি নয়নের রুমের লাইট জ্বলছে। আমি অবাক হলাম। স্মরণে এলো, নয়ন আমাকে ৪/৫ দিন আগে তার হাতে আঁচড়ের দাগ দেখিয়েছে। বলেছে, এই বাসায় ভূত আছে, রাতে আমাকে আঁচড় কেটেছে। নয়ন একথা তার নানীকেও বলেছে এবং নানী তাকে বালিশের নিচে দা রাখতে বলেছেন। আমি নিজে তার বালিশের তোশকের নিচে দা রেখে দিয়েছি। তাহলে আর চিন্তা কী? বূঝে গেলাম ভূতমামার খেলা শুরু।

গভীর রাত, আমি একা বাসায়, ভয় দেখাতে পারলেই কিল্লাফতে। কাল বা পরশু ওরা বাসায় এসে দেখবে দরজা বন্ধ, ভেঙে ঢুকে দেখবে আমি মরে পড়ে আছি। হয়তোবা লাশ পোস্টমর্টেম হবে, রিপোর্ট পাওয়া যাবে, ঘুমের মধ্যে স্ট্রোক করে মারা গেছে। সারাজীবন বৌ ছেলেমেয়েরা কাঁদবে, কেন আমাকে একা রেখে বেড়াতে গেল তারা? সবাই কষ্টটা বয়ে বেড়াবে সারাজীবন। যাহোক, অতীত অভিজ্ঞতা থাকায় ভয় না পেয়ে এ যাত্রা রক্ষা মিলল , তবে এ বাসা ছাড়তে হবে। আসলেই, বনশ্রী এলাকায় ছিল ঘন জঙ্গল। দিনের বেলায়ও শহরের মানুষ ভয়ে এদিকে আসত না। বছর বিশেক হয়ওনি এখনো, সেই জঙ্গল কেটে আবাসিক এলাকা বানানো হয়েছে। আবাস নষ্ট হওয়ার ক্ষোভে ভূতেরা তাই প্রতিশোস্পৃহায় বনশ্রী এলাকায় ঘুরে ফিরছে। জানি না, এমন কতজন তাদের হাতে প্রাণ দিয়েছে এই এলাকার?
ভূত বলে কিছু নেই এমন বিশ্বাসীদের বলছি, আমি ছেড়ে দিলে এই বাসাটি ভাড়া নিয়ে থাকুন একা একা, প্রথম দিনই পাবেন দেখা, জিতেন বা হারেন সেটি পরের কথা।

মনে রাখবেন, ভূত দেখে ভয় পেলেন তো কিল্লাফতে। সবসময় সাহস রাখবেন বুকে। আর মুখস্থ রাখবেন এই দোয়াটি: ” লাইলাহা ইল্লাআন্তা ছুবহানাকা ইন্নি কুনতু মিনাজ্বলেমিন।”

বিপদে পড়লে এই দোয়া পড়লে আল্লাহ মুক্তি দেন।
আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন।

Please follow and like us: