ঈদযাত্রায়ও ট্রেন যাত্রার চিত্র দলায়নি

July 31, 2020 3:49 pm

নিউজ ডেক্সঃ

করোনা মহামারির সংক্রমণ রোধে সীমিত পরিসরে চলছে রেল। প্রতিটি ট্রেনেরই টিকিট বিক্রি হয়েছে অর্ধেক আসনের। এমনকি ট্রেনে চড়ার ক্ষেত্রেও রেলস্টেশনে প্রবেশ করতে হচ্ছে টিকিট দেখিয়ে। ফলে করোনা পরিস্থিতিতে গত মাসখানেক যে চিত্র ছিল রেলের, ঈদযাত্রায়ও তা খুব বেশি বদলায়নি।

ঈদের মতো ভিড় নেই রাজধানীর কমলাপুর রেল স্টেশনে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত কিছুটা চাপ ছিল। কিন্তু শুক্রবার (৩১ জুলাই) সকাল থেকে গত একমাসের তুলনায় হালকা চাপ বেড়েছে। অন্যান্য বছর ঈদের আগে যে চাপ থাকে, তার কোনো চিহ্ন নেই এবার।

সকালে কমলাপুর রেলস্টেশনে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, প্ল্যাটফর্মে অতিরিক্ত যাত্রীর ভিড় নেই। আন্তঃনগর ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য কাউন্টারগুলোতে কোনো লাইনও দেখা যায়নি। স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে প্রবেশের পথগুলোতে যথেষ্ট কড়াকড়ি বসানো হয়েছে রেলওয়ের নিজস্ব নিরাপত্তাকর্মী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর মাধ্যমে। স্বাস্থ্যবিধি মেনেই সব যাত্রীদের থারমাল স্ক্যানার দিয়ে শরীরের তাপমাত্রা পরীক্ষা করে এক এক করে টিকিট চেকের মাধ্যমে ভেতরে ঢোকানো হচ্ছে। স্টেশনে প্রবেশে চিরচেনা সেই দীর্ঘ সারি নেই। এছাড়া ট্রেন ও স্টেশনে যাত্রী সুরক্ষায় শারীরিক দুরত্ব নিশ্চিত, মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। আর অন্যান্য ঈদের মতো ট্রেনের ছাদে যাত্রী পরিবহন করতে দেখা যায়নি। যাত্রীরাও স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেনে যাত্রা করছেন।

করোনার কারণে এবার ঈদে রেলের বাড়তি কোনো আয়োজন নেই, করা হয়নি স্পেশাল ট্রেনের ব্যবস্থা।

জানতে চাইলে কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার আমিনুল হক রাইজিংবিডিকে বলেন, ঈদ উপলক্ষে বাড়তি কোনো আয়োজন নেই। আর যে ট্রেনগুলো চলাচল করছে সেগুলো নির্ধারিত সময়েই কমলাপুর স্টেশন থেকে ছেড়ে যাচ্ছে। এখন পর্যন্ত সব ট্রেনই শিডিউল টাইম অনুযায়ী ছেড়ে গেছে।

তিনি জানান, ঢাকা থেকে শুক্রবার সারাদিন মোট ১২টি আন্তঃনগর ট্রেন বিভিন্ন গন্তব্যে ছেড়ে যাবে।

এদিকে, যাত্রীদের চলাচলের সুবিধার্থে আজ শুক্রবার ৪টি আন্তঃনগর ট্রেনের ছুটি প্রত্যাহার করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। ট্রেনগুলো হলো- ঢাকা থেকে সিলেটগামী কালনী এক্সপ্রেস, কিশোরগঞ্জগামী কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস, রাজশাহীগামী বনলতা এক্সপ্রেস এবং লালমনিরহাটগামী লালমনি এক্সপ্রেস। এ চার আন্তঃনগর ট্রেনের সাপ্তাহিক ডে-অফ প্রত্যাহার করা হয়েছে এবং আগের নির্ধারিত সময়েই ট্রেনগুলো স্টেশন ছেড়ে যাবে বলে জানানো হয়েছে। তবে, ঈদের পরে যথারীতি সব ট্রেনের ডে-অফ বলবৎ থাকবে। এছাড়া, বর্তমানে চলাচলকারী অন্যান্য আন্তঃনগর ট্রেনসমূহ পরিচালনা অব্যাহত রয়েছে।

করোনাকালীন সাধারণ ছুটি শেষে সরকারি নির্দেশে গত ৩১ মে থেকে বিভিন্ন রুটে প্রায় ১৭টি আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল শুরু করে। সেই নিয়মে চলছে এবার ঈদের রেলও।

Please follow and like us: