নবীগঞ্জ বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বিধবা মহিলার সর্বনাশ

August 1, 2020 9:35 am

মোঃ আলমগীর মিয়া, নবীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

নবীগঞ্জ দীঘলবাক ইউনিয়নের মসিবপুর গ্রামের মৃত হারুন মিয়া স্ত্রী সাথে বিয়ের পলোভন দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তুলে ৩ সন্তানের জননীর সাথে দৈহিক মিলামেশা করে প্রতারক লম্পট। এ ঘটনাটি জানাজানি হয়ে গেলে ওই লম্পট বিষয়টি নিয়ে লুকোচুরি করার পর এলাকার লোকজনের মধ্যে জানাজানি হয়ে গেলে রসলো সমালোচনার ঝড় বইছে।

এলাকাবাসীর সূত্রে জানাযায়, ওই গ্রামের হারুন মিয়র ৩ বছর পূর্বে ৩ কন্যা সন্তান ও স্ত্রীকে রেখে মারাযান।মারা যাওয়া পর থেকে হারুন মিয়ার স্ত্রী তিন কন্যা সন্তান নিয়ে মনবতার জীবন যাপন করেন।কোন উপায় না পেয়ে ওই এলাকার হাজী সাজ্জাত মিয়ার দোকানে কাজ করতেন।হাজী সজ্জাত মিয়ার এলাকা সম্পর্কে চাচাতো ভাইর বউ হন।তার দোকানে আয়া কাজ ও গ্রাম সম্পর্কে ভাবি হওয়ার সুবাধে মেয়েদের দেখা শুনাসহ অসহাত্তের সুযোগ নিয়ে তাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয়।সরল বিশ্বাসে জনৈক মহিলা তার প্রস্তাবে রাজি হয়ে যান।এর পর থেকে মহিলার সাথে সাজ্জাত মিয়ার অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে উঠে।এরপর থেকে দীর্ঘ ১৬ মাস ধরে জনৈক মহিলার সাথে বিয়ের আশ্বাসে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তুলে।এ ঘটনার পর জৈনিক সাজ্জাদ মিয়াকে বিয়ে করার জন্য বললে চালাক চতুর সাজ্জাত মিয়া বিভিন্ন বাহানা দেখিয়ে বিষয় টি এরিয়ে যায়।

গত রবিবার মৃত হারুন মিয়ার বাড়ীতে অনৈতিক কাজে হারুন মিয়ার বিধাব স্ত্রীর সাথে অনৈতিক কাজে লিপ্ত অবস্থায় হাতে নাতে ধরে পেলেন মৃত হারুন মিয়ার ছোট ভাই আব্দুল কাইয়ুম। পরে আব্দুল কাইয়ুম তার বড় ভাই আবুল হোসেসকে বিষয়টি অবহিত করলে আবুল হোসেন মাওলানা মিজানুর রহমান ও ময়নুল হকের সমন্নয়ে বিষয়টি সকালে সমাধান আশ্বাস প্রদান করলে সাজ্জাত হোসেনকে তাদের জিম্মায় দেওয়া হয়। পরে সাজ্জাত হোসেন তাদের ডাকে সারা দেন নাই। পরে ওই ঘটনা নিয়ে এলাকাবাসী ডাকেন ওই নির্যাতিত মহিলা। নির্যাতিত মহিলার কথা শুনে এলাকার আব্দুল হান্নান সবুর মিয়া হাজ্বী খসরু মিয়া, নানু মিয়া, মোঃ আঃ রহিমকে দিয়ে ৫ সদস্য কমিটি সাজ্জাত মিয়া সাথে বিষয়টি নিয়ে আলাপ আলোচনা করার জন্য দায়িত্ব দেন শালিক বিচারকগনং। ওই শালিস বৈঠকে সাজ্জাত মিয়ার বড় ভাই সৌদি প্রবাসী এমদাদুল হক বিষয়টি জন্য দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চেয়ে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করেন।

বিষয়টি গ্রাম্য মরুব্বীদের মাধ্যমে সমধান না হওয়ায় ওই বিধাব মহিলা ন্যায় বিচার পাওয়ার আসায় ধারে ধারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। বিধাব মহিলার সাথে সাজ্জাত হোসেনের পরক্রিয়া প্রেমের ঘটনায় এলাকায় জানাজানি হয়ে গেলে এলাকায় রসালো সমালোচনার ঝড় বইছে।

Please follow and like us: