মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার সাহারবাটী ইউনিয়নের গ্রামবাসীদের মধ্যে সংঘর্ষ

August 7, 2020 9:40 pm
Spread the love

সজিব আহমেদ :

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার সাহারবাটী ইউনিয়নের ধর্মচাকী গ্রামে রাস্তা ঘেরাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় মহিলাসহ ৭জন অাহত হয়েছেন।
সংঘর্ষে আহতরা হলেন-ধর্মচাকী গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজ মন্ডলের স্ত্রী জহুরা বেগম (৬৫),মৃত সুরাত আলীর ছেলে মুকুল হোসেন (৫৫), হারেজুল হকের ছেলে বিপুল হোসেন (২২)এবং প্রতিপক্ষ আকমান আলীর ছেলে আব্বাস আলী (২৬), আকমান আলীর স্ত্রী বেগুনা খাতুন (৪৫), মিজানুর রহমানের স্ত্রী মাবিয়া খাতুন (২৩), এবং আব্বাস আলীর স্ত্রী সুরভী খাতুন (২২) ।

উভয় পক্ষের আহতরা গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে (হাসপাতালে) চিকিৎসাধীন রয়েছেন।এসময় কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে টেংগর, মহির, লোকমান, আব্বাস, সাব্বান,হাশেম, আকমান ও নাসিমসহ আরও ৬/৭ জন দেশীয় অস্ত্র লাঠি সোঠা, শাবল , হাসুয়া, রড নিয়ে জমির প্রকৃত দখলদার মুকুলের উপর হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে।

সংঘর্ষে অাহত মুকুল হোসেনের পারিবারিক জানান, বিকালে আমাদের বাড়ীর দখলীয় ৫ কাঠা জমির সীমানায় বাঁশের রেলিং দিতে গেলে প্রতিপক্ষ আকমান আলী গং এর লোকজন নিয়ে দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে জমির মালিক ও তার লোকজনের উপর বাড়ীতে এসে মহিলাদের উপর হামলা ও রক্তাক্ত জখম করে।
অন্যদিকে আহত আব্বাস আলীর স্ত্রী সুরভী জানান, এবছর অতিবর্ষণে রাস্তায় কাঁদাপানি থাকায় আমরা প্রতিপক্ষের জমি দিয়ে যাতায়াত করে আসছিলাম। হঠাৎ করে যাতায়াতের পথ বন্ধ করে দেয়ায় আমরা অবরুদ্ধ হয়ে পড়ি।বেড়া দিতে নিষেধ করায় হেলাল ও তার পরিবারের লোকজন আমাদের উপর হামলা চালায়।

এনিয়ে গ্রামের সাবেক মেম্বার রবিউল ইসলাম জানান, ছোট ঘটনাকে কেন্দ্র করে উভয় পরিবারে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে।থানা থেকে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়েছিল। আমরা উভয় পক্ষ কে নিয়ে আগামীকাল শুক্রবার একটি আপোষ মিমাংসা করবো।

বর্তমান মেম্বর নিজাম উদ্দিন জানান,জমির পথ নিয়ে হারেজুল্লা গুরুফ ও মোল্লা গুরুফের মধ্যে সংর্ঘষ হয়েছে উভয় পক্ষ গাংনী হাসাপাতালে ভর্তি আছে।বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ টার সময় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।