৪টি উপায়ে ঘি ব্যবহার করতে পারেন

October 7, 2020 12:18 pm
Spread the love

অনলাইন ডেক্সঃ

ঘি এমন একটি স্বাস্থ্যকর ফ্যাট, যা ভিটামিন ‘এ’, ‘ডি’, ‘ই’ এবং ‘কে’ দিয়ে ভরপুর। এটি স্রেফ স্বাস্থ্যের জন্যই নয় বরং আপনার চুল এবং ত্বকের জন্যও উপকারী। আপনি যদি আপনার সৌন্দর্যের রুটিনে ঘি যোগ করতে চান তবে আপনার চুল, ঠোঁট এবং ত্বকের জন্য এই ৪টি উপায়ে ঘি ব্যবহার করতে পারেন।

ঘি দিয়ে চুলের মাস্ক

একটি বাটিতে সমপরিমাণ নারকেল তেলের সঙ্গে ৩ থেকে ৪ টেবিল চামচ ঘি মেশান। এতে ১ টেবিল চামচ লেবুর রস এবং ১ টেবিল চামচ অ্যালোভেরা যোগ করুন। এবার ভাল করে মিশিয়ে নিন। আপনার চুলে লম্বালম্বিভাবে এটি ব্যবহার করুন। কমপক্ষে ২ ঘন্টা এভাবেই রেখে দিন এবং উষ্ণ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আপনার চুল হবে মসৃণ ও ঝলমলে।

ঠোঁটে লাগান ঘি

কম আঁচে একটি পাত্র বসিয়ে তাতে ৪ টেবিল চামচ ঘি যোগ করুন। গলে গেলে ২ টেবিল চামচ নারকেল তেল এবং ১ টেবিল চামচ মধু যোগ করুন। মিশ্রণটি তরল হয়ে গেলে, একটি ছোট সমতল পাত্রে ঢেলে নিয়ে ৩ থেকে ৪ ঘন্টার জন্য ফ্রিজে রেখে দিন।

যখন এটি জমে শক্ত হয়ে যাবে, তখন লিপবাম হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। আবার ফ্রিজেই রেখে দেবেন। ঘি আপনার ঠোঁট নরম, কোমল এবং অকর্ষণীয় করে তুলবে।

বডিস্ক্রাবার ঘি

একটি বাটির মধ্যে ৪ থেকে ৫ টেবিল চামচ ঘি, ৩ টেবিল চামচ বাদামি চিনি মেশান। ২ টেবিল চামচ মধু এবং অবশেষে ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা চামচ যোগ করে দিন ওই মিশ্রণে। কাঁচের ভালো পাত্রে ফ্রিজের মধ্যে রেখে দিন। মিষ্টি সুগন্ধযুক্ত এই মিশ্রণ চামড়ার শুষ্কতা দূর করে সতেজ করে তুলবে আপনার ত্বক।

নাইট ক্রিম

ত্বকের খসখসে ও জেল্লাহীন ভাব দূর করতে নাইট ক্রিম হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন ঘি। অল্প পরিমাণ ঘি নিয়ে তাতে সামান্য পরিমাণ পানি মিশিয়ে নিয়মিত দুই থেকে তিন মিনিট মাসাজ করতে হবে। তারপর ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। অথবা কটন প্যাড দিয়ে হালকা করে অতিরিক্ত তেল-তেলে ভাব মুছে নিতে হবে। ত্বক সৌন্দর্য ফিরে পাবে নিমিষেই!