কেন্দুয়ায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর আহত ৫

January 12, 2021 7:52 pm

সৈয়দ সময়

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার চিটুয়া নওয়াপাড়া গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সোমবার দুপুরে মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আশিদ খানের বাড়িতে ও চাষাবাদের জমিতে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে একই গ্রামের আব্দুস সাত্তার ভূইয়া, মোঃ সুজন ভূইয়া ও তাদের লোকজনের বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে আশিদ খানের ছেলে আশরাফুল আলম খান শাহীন বাদী হয়ে আব্দুস সাত্তার ভূইয়া, মোঃ সুজন ভূইয়া প্রতিপক্ষের ৩৫জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত ১০- ১৫জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন।

অভিযোগে জানা গেছে, জেলার কেন্দুয়ার চিটুয়া নওয়াপাড়া গ্রামের মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আশিদ খানের ছেলে আশরাফুল আলম খান শাহীনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের আব্দুস সাত্তার ভূইয়া, মোঃ সুজন ভূইয়া ও তাদের লোকজনের সাথে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। এরই জের ধরে গত সোমবার দুপুরে আব্দুস সাত্তার ভূইয়া, মোঃ সুজন ভূইয়া, মো. বাবু মিয়ার নেতৃত্বে ৪০-৫০জন রামদা, লাঠি, বল্লম, কাতরাসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আশিদ খানের ছেলে আশরাফুল আলম খান শাহীনের আবাদ করা জমিতে ও বাড়িতে হামলা চালায়। হামলাকারীদের অস্ত্রের আঘাতে মোঃ সবুজ খান(৪০), মোঃ হাবি খান(৪৫), মোঃ রাফি খান(২৫), মোঃ দিদার খান(২৫), মোছাঃ বিলকিছ বেগম(৩৫) আহত হন। এ সময় পানি সেচের দুইটি সেচ মেশিন ভাঙচুর চালিয়ে প্রায় ৩০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে এবং প্রায় এক লাখ ২০ হাজার টাকা মূল্যের দুইটি পাওয়ার টিলার নিয়ে যায়। এ সময় এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে গেলে হামলাকারীরা চলে যায়। যাওয়ার সময় খুন জখমের হুমকি দেয়। পরে হামলাকারীরা সশস্ত্র অবস্থায় বাড়িতে হামলা চালিয়ে প্রায় এক লাখ ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে। পওে ঘওে প্রবেশ কওে ওয়ারড্রফের ড্রয়ার হতে নগদ ৭৫ হাজার টাকা নিয়ে যায়। হামলাকারীরা ওই বাড়ির ৫টি ঘর ভাঙচুর চালিয়ে প্রায় ২ লাখ ৫০ হাজার টাকার ক্ষতি সাধন করে। এ সময় তাদের বাধা দিতে গেলে হামলাকারীদের অস্ত্রের আঘাতে মোঃ সবুজ খান, মোঃ হাবি খান, মোঃ রাফি খান, মোঃ দিদার খান ও মোছাঃ বিলকিছ বেগম আহত হন। তাদের কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্্ের ভর্তি করা হয়েছে। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে রেফার করেন।

কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ শাহ্ নেওয়াজ জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। এ ব্যাপারে কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পাওয়ার পর যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।