জ্বালানি পাইপলাইনে সাইবার হামলার পর জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে যুক্তরাষ্ট্র

May 10, 2021 11:47 am

আন্তর্জাতিক ডেক্সঃ

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় জ্বালানি পাইপলাইনে র‍্যানসামওয়্যার সাইবার হামলার পর জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে।

রোববার (৯ মে) একটি বড় পাইপলাইন বন্ধ করার পর জ্বালানি ঘাটতির শঙ্কা দেখা দিয়েছে। সরবরাহ অব্যাহত রাখতে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে মার্কিন সরকার।-খবর বিবিসি ও ফিন্যানসিয়াল টাইমসের।

কলোনিয়াল পাইপলাইনের মাধ্যমে দিনে ২৫ লাখ ব্যারেল জ্বালানি সরবরাহ করা হয়। যা ইস্ট কোস্টে সরবরাহ করা ডিজেল, গ্যাসোলিন ও জেট ফুয়েলের ৪৫ শতাংশ।

শুক্রবার সাইবার অপরাধী গ্যাংয়ের হামলার পর এটি পুরোপুরি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বর্তমানে মেরামতের কাজ চলছে।

জরুরি অবস্থার কারণে সড়ক দিয়ে জ্বালানি পরিবহন সম্ভব হবে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সোমবার জ্বালানির মূল্য দুই থেকে তিন শতাংশ বাড়বে। তবে এটি দীর্ঘ সময় চলতে থাকলে পরিস্থিতি আরও খারাপ অবস্থার দিকে যাবে।

বিভিন্ন সূত্র নিশ্চিত করেছে, ডার্ক সাইড নামের সাইবার-অপরাধীদের দল এই র‌্যানসামওয়্যার হামলা চালিয়েছে। বৃহস্পতিবার তারা কলোনিয়াল নেটওয়ার্কে অনুপ্রবেশ করে। পরে প্রায় ১০০ জিবি উপাত্ত জিম্মি করে রাখে।

উপাত্ত জব্দ করে কয়েকটি কম্পিউটার ও সার্ভারে তা আটকে রাখে। শুক্রবার তারা এগুলো ফেরত দেওয়ার বিনিময়ে অর্থ দাবি করেছে। যদি তা না-দেওয়া হয়, তবে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেয়।

কলোনিয়াল বলছে, সরবরাহ স্বাভাবিক করতে তারা আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা, সাইবার-নিরাপত্তা বিশ্লেষক ও জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কাজ করছে।

ডার্ক সাইড পৃথিবীর সবচেয়ে বড় সাইবার-অপরাধীদের গ্যাং না হলেও এই ঘটনা বলে দিচ্ছে যে, কেবল জাতীয় শিল্প অবকাঠামোই না, ব্যবসাও র‌্যানসানওয়্যারের ঝুঁকিতে রয়েছে।