প্রাচীন মায়া সভ্যতা ধংসের হওয়ার কারণ…

August 28, 2016 5:26 pm

ইতিহাস ;

প্রাচীন মায়া সভ্যতা ধংসের হওয়ার কারণ ছিল জলের অভাব। ভিয়েনার বিশ্ববিদ্যালয়ের রিসার্চে এমন তথ্যই উঠে এল। অতদিন আগেও মায়ানরা প্রযুক্তিগত ভাবে অনেক এগিয়ে ছিল। খরা থেকে বাঁচবার জন্য তারা জলসংরক্ষণাধার বানিয়েছিল। কিন্তু এই জলসংরক্ষণাধারগুলিই দীর্ঘকালীন খরার সময় শুকিয়ে যায়। ফলে একরকম জলকষ্টে মারা যেতে থাকেন সেখানকার মানুষ। দ্রুত মায়ান সভ্যতা ধাবিত হয় ধ্বংসের দিকে।

গবেষকদের মতে নবম শতকের মায়া সভ্যতা ভয়াবহ কোন কারনেই ধংস হয়ে গিয়েছিল। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই মধ্য আমেরিকার এই উন্নত সভ্যতা উন্নতির শিখর থেকে ধ্বংসের দিকে এগিয়ে যায়। জনসংখ্যাও দ্রুত কমতে থাকে। আর সভ্যতার স্মারক পাথরের ভবনগুলোও দ্রুত ধ্বংসবশেষে পরিনত হয়। ইউকাতানে নির্মিত ভবনগুলো নতুন ভাবে তৈরি করাও সম্ভব হয়নি। ভিয়েনা প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা বলছেন, কৃষি প্রযুক্তি খরার সময় মায়া সভ্যতাকে টিকিয়ে রাখতে সাহায্য করেছিল। তবে সেই কৃষি এবং প্রযুক্তিই প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সময় পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যায়। ফলত সভ্যতা এগিয়ে চলে ধ্বংসের পথে। সবুজের উপর নির্ভরশীল এই মানব সভ্যতা নিজেদের উন্নতিরর কারণে একসময় সবুজ ধ্বংস করতে আরম্ভ করে। সবুজের মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গেই একসময় অতলে তলিয়ে যায় মায়ানরা। বিজ্ঞানীদের মত বর্তমান মানব সভ্যতা প্রযুক্তিতে যতই উন্নতি করুক না কেন প্রাকৃতিক সম্পদের খেয়াল না রাখলে এই মানব সভ্যতাও দ্রুত এগিয়ে যাবে ধ্বংসের দিকে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*