যুদ্ধাপরাধীদের সকল সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা হবে – আ ক ম মোজাম্মেল হক

August 30, 2016 9:05 am

নিউজ ডেক্সঃ

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, যুদ্ধাপরাধীদের সকল সম্পদ বাজেয়াপ্ত করে তা মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে ব্যয় করা হবে। তিনি বলেন, একাত্তরে স্বাধীনতাবিরোধী রাজনৈতিক দল জামায়াতের রাজনীতিও নিষিদ্ধ করে দেশকে কলংকমুক্ত করা হবে। কারণ, যারা একাত্তরে স্বাধীনতা যুদ্ধের বিরোধিতা করেছে। তাদের এদেশে রাজনীতি করার কোন অধিকার নেই।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪১তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আজ মঙ্গলবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় সংগঠনের সভাপতি শেখ আহমদ হোসেন মির্জা সভাপতিত্ব করেন। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মমতাজ উদ্দিন আহমদ ও একাত্তরের সাব-সেক্টর কমান্ডার মাহবুব উদ্দিন আহমদ বীর বিক্রম প্রমুখ।

মন্ত্রী মোজাম্মেল হক বলেন, জিয়া-মোস্তাক চক্র জাতির পিতার হত্যার সাথে জড়িত ছিল বলেই ইনডেমনিটি আইন করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের পথ বন্ধ করে দিয়েছিল। ’৭৫ সালের পরে তারা স্বাধীনতাবিরোধীদের পুনর্বাসন করেছিল। মুক্তিযুদ্ধকালে তাদের ভূমিকাও ছিল বিতর্কিত। তাই জিয়া-মোস্তাক চক্রের বিচারসহ বঙ্গবন্ধু হত্যার সাথে জড়িত নেপথ্য চক্রীদের বিচারের জন্য কমিশন গঠন করা হবে।

তিনি বলেন, সংসদ এলাকায় স্বাধীনতাবিরোধীদের কোন কবর থাকবে না। জিয়ার কবরে জিয়ার কোন লাশ আছে বলে কোন প্রমাণ নেই। তাই মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে জাতীয় সংসদের স্পীকারের কাছে দু’দফায় পত্র দিয়ে সংসদ এলাকা থেকে সকল কবর সরিয়ে ফেলার জন্য অনুরোধ জানিয়ে পত্র দেয়া হয়েছে।

তিনি যুদ্ধাপরাধী মীর কাশেম আলীর মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখার রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, সকল যুদ্ধাপরাধীর সম্পদ বাজেয়াপ্ত ও জামায়াতের রাজনীতি নিষিদ্ধ করা হবে।

মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বৈশাখী ভাতাসহ ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস ও ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের বিশেষ সম্মানি ভাতা চালু করার উদ্যোগ গ্রহণের কথাও জানান তিনি।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানিত করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশেষ উদ্যোগ নিচ্ছেন।

তিনি দেশের অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখতে দেশবাসী ও মুক্তিযোদ্ধাদেরকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় কাজ করার আহবান জানান।

Please follow and like us:

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*