ভারতকে কাঁপিয়েই হারলো বাংলাদেশ

মার্চ ২৩, ২০১৬ ৬:১৯ দুপুর
India's bowler Suresh Raina(2R)celebrates with teammates after taking the wicket of Bangladesh batsman Sabbir Rahman during the World T20 cricket tournament match between India and Bangladesh at The Chinnaswamy Stadium in Bangalore on March 23, 2016. Bangladesh is chasing a target of 146 runs scored by India with a loss of 7 wickets. / AFP / MANJUNATH KIRAN (Photo credit should read MANJUNATH KIRAN/AFP/Getty Images)

বিশ্বকাপের সুপার টেনের তৃতীয় ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ।

ম্যাচটিতে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান তুলে ভারত। জবাবে বাংলাদেশের ইনিংস থামে ১৪৫ রানে। ফলে এক রানের আফসোসের হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

বেঙ্গালুরুর এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে (২৩ মার্চ) টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। বাংলাদেশ সময় রাত আটটায় শুরু হয় ম্যাচটি।

টিম ইন্ডিয়ার হয়ে ব্যাটিং উদ্বোধন করতে নামেন শিখর ধাওয়ান এবং রোহিত শর্মা।টাইগারদের হয়ে বোলিং শুরু করেন দলপতি মাশরাফি। প্রথম ওভারে মাশরাফি ৫ রান দিলেও দ্বিতীয় ওভারে শুভাগত হোম দেন ৪ রান। আল আমিনের করা পরের ওভার থেকে ভারতীয় ওপেনাররা নেন আরও ৮ রান। চতুর্থ ওভারে আক্রমণে আসেন মুস্তাফিজ, সে ওভারে খরচ হয় ৬ রান। পঞ্চম ওভারে সাকিব খরচ করেন আরও ৪ রান। মুস্তাফিজের করা ষষ্ঠ ওভারে টিম ইন্ডিয়ার ওপেনাররা তুলে নেন ১৫ রান। তবে, ষষ্ঠ ওভারের শেষ বলে মুস্তাফিজ ফিরিয়ে দেন রোহিত শর্মাকে। সাব্বিরের হাতে ধরা পড়ার আগে রোহিত এক চার ও এক ছক্কায় ১৬ বলে করেন ১৮ রান।

 

পাওয়ার প্লে’তে ভারতের সংগ্রহ দাঁড়ায় এক উইকেটে ৪২ রান।

মুস্তাফিজের পর ভারত শিবিরে আঘাত হানেন সাকিব। সপ্তম ওভারে সাকিব ফেরান শিখর ধাওয়ানকে। এলবির ফাঁদে পড়ে ভারতের এই ওপেনার আউট হওয়ার আগে করেন ২২ বলে ২৩ রান।

 ©IDI/Getty Images

১০ ওভার শেষে ভারত দুই উইকেট হারিয়ে তোলে ৫৯ রান। ৮৪ বলে ভারতের দলীয় শতক আসে।

দলীয় ৪৫ রানের মাথায় রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ানকে ফিরিয়ে দিলেও বিরাট কোহলি আর সুরেশ রায়না জুটি গড়েন। এ জুটি থেকে আসে আরও ৫০ রান। ইনিংসের ১৪তম ওভারে শুভাগতের বলে ছক্কা হাঁকিয়ে পরের বলেই বোল্ড হন কোহলি। কোনো বাউন্ডারি না পেলেও একটি মাত্র ছক্কায় ২৪ বলে ২৪ রান করেন কোহলি।

শুভাগত কোহলিকে ফিরিয়ে দেওয়ার পর ইনিংসের ১৬তম ওভারের প্রথম বলে ৩০ রান করা সুরেশ রায়নাকে ফিরিয়ে দেন আল আমিন। পরের বলেই ব্যাটে ঝড় তোলার ইঙ্গিত দেওয়া হারদিক পান্ডেকে ফেরান টাইগার এই পেসার। সাব্বিরের হাতে ধরা পড়ার আগে ২৩ বলে একটি চার আর দুটি ছক্কায় রায়না তার ইনিংসটি সাজান। সৌম্য সরকারের অসাধারণ ক্যাচে ফেরেন ৭ বলে ১৫ রান করা পান্ডে। তবে, হ্যাটট্রিক বঞ্চিত হন আল আমিন।

 ©AFP

ইনিংসের ১৭তম ওভারে মাশরাফি বোলিং আক্রমণে আনেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদকে। এসেই যুবরাজকে ফিরিয়ে দেন রিয়াদ। শেষ ওভারের প্রথম বলেই জাদেজার স্ট্যাম্প ভেঙে দেন মুস্তাফিজ। বোল্ড হওয়ার আগে ১২ রান করে বিদায় নেন জাদেজা।

টাইগারদের হয়ে ৪ ওভারে মাশরাফি দেন ২২ রান। আল আমিন ৪ ওভারে ৩৭ রান দিয়ে তুলে নেন দুটি উইকেট। সাকিব ৪ ওভারে একটি উইকেট তুলে নেন ২৩ রান খরচায়। এক ওভার বল করে রিয়াদ ৪ রানের বিনিময়ে নেন একটি উইকেট। ৩ ওভার বল করে শুভাগত ২৪ রান খরচ করে দখল করেন একটি উইকেট। মুস্তাফিজ ৪ ওভারে ৩৪ রান দিয়ে নেন আরও দুটি উইকেট।

১৪৭ রানের টার্গেটে টাইগারদের হয়ে ব্যাটিং উদ্বোধন করতে নামেন তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ মিঠুন।

দলীয় ১১ রানে অশ্বিনের বলে পান্ডের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন মিথুন আলী (১)। এরপর দলীয় ৫৫ রানে জাদেজার বল এগিয়ে এসে খেলতে গিয়ে স্ট্যাম্পড হন তামিম ইকবাল (৩২)।

 ©AFP

দলীয় ৬৯ রানে রায়নার বলে স্ট্যাম্পড হন সাব্বির রহমান (২৬)। ৮৭ রানের মাথায় জাদেজার বলে বোল্ড হয়ে যান মাশরাফি (৬)। আর ৯৫ রানের মাথায় অশ্বিনের বলে রায়নার হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হন সাকিব আল হাসান (২২)।

১২৬ রানের মাথায় আউট হন সৌম্য সরকার। ১৪৫ রানের মাথায় মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকুর রহিম আউট হন। শেষ বলে জয়ের জন্য ২ রান প্রয়োজন ছিল। কিন্তু বাংলাদেশ সেটা নিতে ব্যর্থ হয়। শেষ বলে রান আউটে কাটা পড়েন মুস্তাফিজুর রহমান। ফলে ১ রানে হেরে যায় বাংলাদেশ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*