২০১৬-১৭ অর্থ বছরের জন্য ২৯৫ কোটি ২৬ লাখ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট অনুমোদন

May 31, 2016 6:36 pm

সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টারঃ

আগামী অর্থবছরের (২০১৬-১৭) জন্য ২৯৫ কোটি ২৬ লাখ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট অনুমোদন দিয়েছে সংসদ সচিবালয় কমিশন। যা গত অর্থবছরে ছিল ২০৩ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির ২৭তম বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠকে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর অসুস্থতার কারণে সভাপতিত্ব করেন ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়া। বৈঠকে সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ও আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক অংশ নেন। বিশেষ আমন্ত্রণে চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়া সাংবাদিকদের বলেন, কমিশন বৈঠকে বাজেট ছাড়াও বিগত বৈঠকের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী সংস্কার কাজ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে শেষ করার তাগিদ দেন। আর সংসদ লাইব্রেরিকে অত্যাধুনিক ভাবে সাজানোর জন্য স্থাপত্য অধিদপ্তরকে নির্দেশনা দিয়েছেন।

বৈঠক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ভাতা বৃদ্ধি ছাড়াও বেশ কিছু বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে আগামী অর্থ বছরের জন্য ২৯৫ কোটি ২৬ লাখ টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়। প্রস্তাবিত বাজেটে অনুন্নয়ন খাতে ২৯৪ কোটি ২১ লাখ টাকা এবং উন্নয়ন খাতে এক কোটি এক লাখ টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। আর ২০১৫-১৬ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটে ২৪৩ কোটি ৫৬ লাখ ২১ হাজার টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে।

বৈঠকে বাজেট অনুমোদন ছাড়াও কমিশনের বৈঠকে ভাতা ও খাবারের বিল বৃদ্ধির প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়। এক্ষেত্রে কর্মকর্তাদের অধিবেশনকালীন ভাতা ৩০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৬০০ টাকা ও কর্মচারীদের ভাতা ২০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৬০০ টাকা এবং অধিবেশন না থাকলে উভয়ের ভাতা ৪০০ টাকা করা হয়েছে।

এছাড়া দুপুরের খাবারের বিল একশ টাকার পরিবর্তে ২০০ টাকা করা হয়েছে। এছাড়া বৈঠকে নিয়োগ, ক্রয় ও বিধিমালা সংশোধনের বিষয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকে সংসদ সচিবালয়ে মাস্টাররোলে কর্মরতদের মজুরি বৃদ্ধিসহ বছরে দু’টি উৎসব ভাতা ও বাংলা নববর্ষ ভাতা প্রদানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। অধিবেশন চলাকালে দৈনিক ভিত্তিতে কর্মরতদের ভাতা ২০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩০০ টাকা করা হয়েছে। আর পরিচ্ছন্নতা কর্মীসহ নতুন কিছু কর্মচারী নিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এছাড়া সংসদীয় কমিটির সভাপতিদের জন্য একটি করে ফ্যাক্স মেশিন ও একটি করে ফটোকপিয়ার মেশিন বরাদ্দের প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, সাধারণত বাজেটকে সামনে রেখে সংসদ সচিবালয় কমিশনের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে সংসদের বাজেট অনুমোদনসহ আনুষাঙ্গিক সকল বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। গত বছর ২ জুন এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

Please follow and like us:

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*