ফতুল্লায় এক হিন্দু বিধবা নারীকে ধর্ষনের চেষ্টা পুজা কমিটির নেতার!

জুন ৯, ২০১৭ ১০:৪৭ দুপুর

মোঃ খোকন প্রধান, চীফ রিপোর্টারঃ

ফতুল্লায় এক বিধবা হিন্দু নারীকে ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্হানীয় পুজা কমিটির প্রচার সম্পাদক সত্যরঞ্জন ওরফে কাইল্যা সত্যার বিরুদ্ধে। এদিকে পুজা কমিটির লম্পট নেতার বিরুদ্ধে বিধবা নারী মাধবী রানী অভিযোগ করার পর পুলিশ ঘটনাস্হলে তদন্তে যাওয়ার পূর্বেই লম্পট কাইল্যা সত্যা ও তার অনুগামী লোকজন ভুক্তভোগী বিধবা নারী কে এলাকা ছাড়া করার নানা ধরনের পায়ঁতারা করছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগে জানা গেছে, ফতুল্লার হরিহরপাড়া এলাকার শীষমহল হিন্দু পট্রি এলাকার মাধবী রানী নামে এক বিধবা মহিলা তার তিন সন্তান নিয়ে বসবাস করে আসতেছিল। উক্ত এলাকার কৃষ্নকলি পুজা কমিটির প্রচার সম্পাদক সত্যরঞ্জন ওরফে কাইল্যা সত্যা ঐ বিধবা নারীর স্বামী মারা যাওয়ার পর গত কয়েক মাস পূর্বে বিধবা নারীর ঘরে প্রবেশ করে। তখন বিধবা নারী তার তিন সন্তান নিয়ে নিজ স্বামীর বসতঘরে ঘুমিয়ে ছিলো, এসময় কাইল্যা সত্যা বিধবা নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা চালায়। বিধবা নারীর ডাক চিৎকারে আশে-পাশের লোকজন লম্পট সত্যরঞ্জন ওরফে কাইল্যা সত্যা কে আটক করে গণধোলাই দেয় বলে অভিযোগে জানা গেছে। এঘটনায় ভুক্তভোগী বিধবা নারী মাধবী ফতুল্লা মডেল থানায় লম্পট সত্যরঞ্জন ওরফে কাইল্যা সত্যার বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ পাওয়া গেছে, থানায় অভিযোগ দায়ের করার পর লম্পট কাইল্যা সত্যা ও তার সহযোগীরাসহ পুজা কমিটির প্রভাবশালী কয়েক জন নেতা ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছেন এবং যদি অভিযোগ প্রত্যাহার না করা হয় তবে বিধবা নারী কে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে এলাকা ছাড়া করার হুমকিও দিচ্ছে বলে দাবী বিধবা নারীর।

ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান (২) জানায়, উল্লেখিত ঘটনায় হরিহরপাড়া এলাকার মাধবী রানী নামে এক নারী একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এঘটনায় বিষয় ফতুল্লার হরিহরপাড়া শীষ মহল এলাকার স্হানীয় কৃষ্নকলি পুজা কমিটির সভাপতি দিলীপ কুমার মন্ডল জানায়, এই ধরনের কোনো কথা তিনি ঘটনার কথা আমার জানা নাই। ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল উদ্দীন জানায়, এই ধরনের কোনো অভিযোগ এর কথা আমার এখনো জানা নেই, তবে বিষয়টি খোজঁ খবর নিচ্ছি এবং পরে যথাযর্থ ব্যবস্হা নেওয়া হবে।