মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রতি গোয়েন্দা নজরদারী বাড়ানোর কথা বললেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

June 13, 2016 6:57 pm

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

যুক্তরাষ্ট্রঃ অরল্যান্ডো হত্যাকাণ্ডের জন্য মুসলিমদের ঘাড়ে দায় চাপাচ্ছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, ‘মসজিদগুলোয় নজর রাখতে হবে।’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ট্রাম্প সোমবার সিএনএনকে বলেছেন, অরল্যান্ডোয় সমকামীদের নাইটক্লাবে বন্দুক হামলাকারী ওমর মতিন মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে চেনাজানা লোক ছিলেন। তিনি সহিংস মানুষ ছিলেন। কিন্তু মুসলিমরা তার বিষয়ে রিপোর্ট করেননি।

শনিবার দিবাগত রাত ২টায় পালস নামের নাইটক্লাবে হামলা চালিয়ে ওমর মতিন ৫০ জনকে হত্যা করেন। এ সময় আহত হয় আরো ৫৩ জন। টুইন টাওয়ারে সন্ত্রাসী হামলার পর এটি ছিল যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় প্রাণঘাতী হামলা।

টেলিফোন সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প সিএনএনকে বলেন, ‘অনেককে খুঁজে পাওয়া যাবে, যারা ওমর মতিনকে চিনতেন, যে কি না যেকোনো ধরনের অঘটন ঘটিয়ে দিতে পারেন … শেষ পর্যন্ত তা-ই হলো। তার প্রাক্তন স্ত্রীসহ যারা তাকে চিনতেন, তাদের মধ্যে কেউ তার সম্পর্কে রিপোর্ট করেননি। এরকম অন্য ক্ষেত্রেও মুসলিম সম্প্রদায় এ ধরনের ব্যক্তিদের বিষয়ে রিপোর্ট করে না।’

ট্রাম্পের ভাষ্য, ‘এ ধরনের ঘটনা যাতে না ঘটে, সেজন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রয়োজন আরো গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করা। মসজিদগুলোর দিকে আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে … এ সম্প্রদায়ের প্রতি নজর রাখতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাকে বিশ্বাস করুন, এ সম্প্রদায়ের (মুসলিম) লোকেরা সম্ভাব্য হামলাকারীদের চেনেন।’

এ ছাড়া ফক্স নিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ডোনাল্ড ট্রাম্প অরল্যান্ডো হামলার প্রেক্ষাপটে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) ওপর হামলা জোরদার করার কথা বলেছেন।

অরল্যান্ডো হত্যাকাণ্ডের সুযেগে ট্রাম্প তার আগের বিতর্কিত মন্তব্য ‘মুসলিমদের যুক্তরাষ্ট্র থেকে বের করা দেওয়া হবে’ প্রতিষ্ঠিত করার সুযোগ নিচ্ছেন বলেই মনে করা হচ্ছে।

এদিকে ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন বলেছেন, আমেরিকান মুসলিমদের ঘাড়ে অপবাদ দেবেন না। জাতীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সবাই মিলে কাজ করতে হবে।

এ ছাড়া হিলারি ‘বিভক্তিবাদ নয় বরং রাষ্ট্রীয় নাগরিকত্ব’ ভিত্তিতে জাতীয় নিরাপত্তার ইস্যুটি দেখার আহ্বান জানিয়েছেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*