চব্বিশপরগনায় গৃহবধূর আপত্তিকর দৃশ্য দেখে ফেলায় শাশুড়িকে হত্যা

সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৭ ৪:২৬ দুপুর

আন্তর্জাতিক ডেক্সঃ

স্বামী ছেড়ে অন্য পুরুষের সঙ্গে আপত্তিকর সম্পর্কে মেতেছিলেন গৃহবধূ। কিন্তু এ দৃশ্য দেখে ফেলেন তার শাশুড়ি। আর এটাই কাল হয়ে দাড়ায় শাশুড়ির জন্য। এ কারণে শাশুড়ী মালতী সাতকে (৫২) শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে গৃহবধূ ও তার কথিত প্রেমিকের বিরুদ্ধে।

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর চব্বিশপরগনার শ্যামনগর ডানবার কটন মিল কুলি লাইন এলাকায়।

এ ঘটনায় প্রেমিক সুভাষ হেলাকে আটক করেছে পুলিশ। তবে গৃহবধূ সুতপা এখনো সাউ পলাতক থাকায় পুলিশ তাকে খুঁজছে।

পরিবারের লোকজন জানায়, অষ্টমীর রাতে বাড়িতে ছিলেন না সুতপার স্বামী। শাশুড়ি মালতী সাউও সে সময় বাহিরে গিয়েছিলেন। এই সুযোগে প্রেমিক সুভাষ হেলাকে বাড়িতে ডেকে নেন সুতপা। এরই মধ্যে আপত্তিকর অবস্থায় জড়িয়ে পড়েন তারা। ফাঁকে বাড়িতে শাশুড়ি ফিরে আসলে সুভাষ এবং সুতপাকে তিনি ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখে ফেলেন। পরে শাশুড়িকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর সুভাষ ও সুতপা লাশটি ফাঁস লাগিয়ে ঘরের ভেতরে ঝুঁলিয়ে রাখে। বিষয়টি ধামাচাপা দিতে তারা প্রতিবেশীদের কাছে আত্মহত্যা বলেও চালানোর চেষ্টা করে। কিন্তু পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধারের পরই বেরিয়ে আসে ঘটনার আসল রহস্য। পরে প্রেমিক সুভাষকে আটক করা হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, স্বামীর অবর্তমানে সুতপার সঙ্গে প্রায়ই দেখা করতে আসত সুভাষ। তাদের মধ্যে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। সুতপার শাশুড়িকে খুন করা হয়েছে বলে মনে করছেন তারা।