মনবতাবিরোধী অপরাধে মুসা রাজাকারের বিরুদ্ধে তৃতীয় দফা তদন্ত শুরু

অক্টোবর ৫, ২০১৭ ১১:০০ সকাল

নিউজ ডেক্সঃ

রাজশাহীর মনবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত আবদুস সালাম ওরফে মুসা রাজাকারের বিরুদ্ধে গত মঙ্গলবার থেকে তৃতীয় দফা তদন্ত শুরু করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। তদন্ত দলের সদস্য এসআই নাজমুল হুদা বুধবার বিকেলে গোটিয়া গ্রামে দ্বিতীয় দিনের তদন্ত কার্যক্রম শেষে সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের মধ্যে রয়েছে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে জেলার পুঠিয়া উপজেলার ৭ টি গ্রামে ধর্ষণ, গণহত্যা, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের ইন্সপেক্টর ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফারুক হোসেনের নেতৃত্বে ৪ সদস্যের এই তদন্ত দলে রয়েছেন উপ-পরিদর্শক (এসআই) জিএম নাজমুল হুদা, কন্সটেবল কবির ভট্রাচার্য ও ড্রাইভার হাবিবুর রহমান।

এসআই জিএম নাজমুল হুদা জানান, ধর্ষণ, গণহত্যা, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাটসহ কয়েকটি অভিযোগ এনে প্রায় দু’বছর আগে পুঠিয়া উপজেলার পশ্চিমভাগ গ্রামের শহীদ আবদুস সামাদের স্ত্রী রাফিয়া বেগম মানবতাবিরোধী আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেন। এই অভিযোগের ভিত্তিতে ট্রাইব্যুনালের তদন্তকারী দল এর আগে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দু’দফা তদন্ত করেছেন। সর্বশেষ চলতি বছরের ৯ জানুয়ারী ২য় দফা তদন্ত করেন।

তিনি আরও জানান, প্রথমদিন মঙ্গলবার উপজেলার ধোকড়াকুল গ্রামে তদন্ত করে স্বাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহন করা হয়েছে এবং বুধবার ২য় দিন উপজেলার একই গোটিয়া গ্রামে তদন্ত করে সাক্ষ্য গ্রহন করেন। বৃহস্পতিবার রাজশাহী সার্কিট হাউজে কয়েকজনের সাক্ষ্য গ্রহণের মধ্যে দিয়ে তৃতীয় দফার তদন্ত কাজ শেষ করবেন।

ইতমধ্যে মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত আবদুস সালাম ওরুফে মুসার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের মধ্যে ‘ধর্ষণ’ বাদে সবগুলো অপরাধ প্রমানিত হয়েছে বলে জানান তিনি ।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৬ নভেম্বর পুঠিয়া উপজেলার তাড়াঁশ গ্রামে বোমা তৈরির সময় বিস্ফোরনের ঘটনায় সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে চলতি বছরের ২২ জানুয়ারী নাশকতার মামলায় আবদুস সালাম ওরুফে মুসাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।