মায়ের বুকে ফিরে যাচ্ছে শিশু সনু

জুন ৩০, ২০১৬ ৬:২২ সকাল

নিজস্ব প্রতিবেদক;

ভারতের দিল্লী থেকে হারিয়ে যাওয়া শিশু সনু বাড়িতে ফিরবে বৃহস্পতিবার। ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মকর্তারা বুধবারই তাকে নিয়ে বরিশাল থেকে ঢাকায় পৌঁছেছেন।

পাঁচ বছর ধরে নিখোঁজ থাকার পর ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে দিল্লীতে তার পিতামাতার সন্ধান পাওয়া যায়।

সোমবার বরগুনা আদালতের আদেশের পরিপ্রেক্ষিতে শিশু সনুকে মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকাস্থ ভারতীয় দূতাবাসের একজন কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করা হয়।

পাঁচ বছর আগে বরগুনার এক নারী ভারত থেকে শিশু সনুকে নিয়ে আসেন। পরে তার প্রতিবেশি জামাল ইবনে মূসার বিষয়টি সন্দেহ হলে শিশুটির কাছে বিস্তারিত জেনে বরগুনার নারী ও শিশু সংক্রান্ত বিশেষ আদালতে মামলা করেন। ওই আদালত ২০১৫ সালের ২২ ডিসেম্বর সনুকে যশোর কিশোর সংশোধনী কেন্দ্রে পাঠায়। সংশোধনী কেন্দ্রে থাকা সনুকে তার বাবা-মা’র কাছে পৌঁছে দেওয়ার সংকল্পে এ বছরের মে মাসের প্রথম দিকে ভারতে পাড়ি জমান জামাল। প্রায় ১৫ দিন খোঁজাখুঁজি করে দিল্লিতে বের করেন সনুর বাবা-মাকে। তখন ভারতের সংবাদমাধ্যমে বাংলাদেশি ‘বজরঙ্গি ভাইজান’ বলে খ্যাতি পান তিনি।

সনুকে বাংলাদেশে নিয়ে আসার ঘটনায় বরগুনার আদালতে এখন মানবপাচারের একটি মামলা বিচারাধীন আছে। আদালত শর্ত দিয়েছে যে মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য শিশু সনুকে যখন প্রয়োজন হবে তখন যেন তাকে হাজির করানো হয়।

বরগুনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত সরকারী কৌসুলি আক্তারুজ্জামান জানিয়েছেন, আদালত প্রথমে শর্ত দিয়েছিল যাতে মামলার সাক্ষির প্রয়োজনে শিশু সনুকে আদালতে হাজির করাতে ভারতীয় হাই কমিশন ‘বাধ্য’ থাকে।

কিন্তু এ বিষয়টি পুন:বিবেচনার আবেদন জানানো হয়। এরপর আদালত সংশোধিত আদেশে বলে প্রয়োজনে ভারতীয় হাইকমিশন শিশু সনুকে আদালতে হাজির ‘নিশ্চিত’ করতে পদক্ষেপ নেবে।

শিশু সনু দিল্লী থেকে নিখোঁজ হয়েছিল নাকি তাকে পাচার করে বাংলাদেশে আনা হয়েছিল, সে বিষয়টি এ মামলার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*