রুপগঞ্জে মাদক কেনার টাকা না দেওয়ায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যা

February 11, 2018 12:05 am

মোঃ খোকন প্রধান

রুপগঞ্জে মাদক কেনার টাকা না দেওয়ার স্ত্রী মাধবী আক্তার (২২) কে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর ঘাতক স্বামী মিজানুর রহমান (৩৫) ঘরের সিলিংয়ের সাথে ওড়না পেচিঁয়ে আত্নহত্যা করেছেন।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের পূর্ব গ্রামে এঘটনাটি ঘটেছে বলে জানা গেছে। পুলিশ দুজনেট মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়নগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করেন। মাদকাসক্ত মিজানুর রহমান পূর্ব গ্রামের মনিরুজ্জামানের ছেলে, নিহত গৃহবধু রাজধানী ঢাকার ডেমড়া থানা এলাকার মজিবুর রহমানের মেয়ে বলে জানা গেছে।

এঘটনায় মামলার প্রস্তুুতি চলছে বলে জানিয়েছে রুপগঞ্জ থানার ওসি মোঃ ইসমাঈল হোসেন। নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে তিনি জানায়, গত ৪ বছর পূর্বে মিজানুর রহমানের সাথে মাধবী আক্তারের সামাজিক ভাবে বিয়ে হয়, তাদের সংসারে মালিহা আক্তার নামে একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। মিজানুর রহমান বিয়ের আগ থেকেই বিভিন্ন ধরনের মাদক সেবনে আসক্ত ছিলে সে দিন মজুরের কাজ করতো। স্বামীর মাদক সেবন নিয়ে নিয়মিত তার স্ত্রী মাধবীর সাথে ঝগড়া বিবাদ হতো এর পরে কয়েক দিন একটু ভাল ভাবে কাটলেও আবারো মিজান মাদক সেবন করে বাসায় ফিরলে স্ত্রীর সাথে ঝগড়া হতো। শনিবার দিন বিকেলে মিজান মাদক সেবন করার জন্য স্ত্রী মাধবীর কাছে টাকা চায় এসময় গৃহবধু টাকা দিতে পারবে না বলায় মিজার তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং দুজনের মধ্যে বাক বিতন্ডার সৃষ্টি হলে, মিজান ঘরের দরজা বন্ধ করে সন্ধ্যার দিকে নিজ ঘরের খাটের উপর স্ত্রী মাধবী কে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন।

সুএে আরো জানায় এর পরে ঘাতক মিজান উক্ত রুমের সিলিংয়ের সাথে ওড়না পেচিঁয়ে আত্নহত্যা করেন। রাত পৌনে ৭ টার দিকে বাড়ীর অন্য লোকজন তাদের কোনো সাড়া শব্দ না পেয়ে জানালার একটি ছিদ্র দিয়ে দেখতে পায় মিজানুর রহমানের ঝুলন্ত মরদেহ এবং খাটের উপর মাধবীর নিথর দেহ পড়ে আছে। বাড়ীর লোকজন এবিষয়টি থানা পুলিশ কে অবগত করলে পুলিশ ঘটনাস্হলে এসে দুজনের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়নগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করেন

Please follow and like us: