ডিজিটালাইজড ক্লাস পদ্ধতি আলোর মুখ দেখছে না

জুলাই ১২, ২০১৬ ৫:০৭ সকাল

নিউজ ডেক্সঃ

শিক্ষকদের অনীহার কারণে ঝিনাইদহে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টের মাধ্যমে পাঠদান কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। ফলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ডিজিটালাইজড ক্লাস পদ্ধতি আলোর মুখ দেখছে না। সরকারের দেয়া ল্যাপটপ ও মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরসহ লাখ লাখ টাকার যন্ত্রপাতি অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্পের আওতায় ২০১২-১৩ সালে ঝিনাইদহ জেলার অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো, এমপিও এবং বিদ্যুৎ ব্যবস্থাসহ বিভিন্ন বিষয় বিশ্লেষণ করে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর, স্ক্রিন, ল্যাপটপ, মডেম ও লাউড স্পিকার প্রদান করা হয়।

একই সঙ্গে ওই সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৩ জন করে শিক্ষককে যশোর টিচার্স ট্রেনিং সেন্টারে ১৫ দিনে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়। ওই সকল শিক্ষক নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের এ ডিজিটাল পদ্ধতিতে পাঠ দান করাবেন। তবে এ পদ্ধতি শিক্ষার্থীদের মাঝে সাড়া জাগালেও শিক্ষকদের অনীহার কারণে কার্যক্রম চরমভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহের ফুলহরি কাজীপাড়া হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আলতাফ হোসেন জানান, এ পাঠ পদ্ধিতিটি নতুন। তাই একটু সমস্যা হচ্ছে। তাছাড়া সত্যি কথা বলতে শিক্ষকদেরও এ পাঠদানের বিষয়ে আগ্রহ একটু কমই আছে।

আব্দুর রউফ ডিগ্রি কলেজের উপাধ্যক্ষ বিবেকানন্দ তরফদার জানান, এ পদ্ধতিতে পাঠ দানের বিষয়ে কলেজে কোনো কার্যক্রম হয় কিনা জানা নেই।

এ বিষয়ে মধুহাটি হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রহমান জানান, তাদের প্রতিষ্ঠানে ক্লাস রুমের সমস্যা আছে। ফলে মাল্টিমিডিয়া ক্লাস যে ভাবে নেয়া দরকার তা হয়ে ওঠেনা।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জানান, এ বিষয়ে আমরা যতেষ্ঠ আন্তরিক। শিক্ষদের ভালো দক্ষ করে তোলার জন্য আবারও তাদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তবে ওই সকল প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করে তারা যেন প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের ভালো করে পাঠ দান করতে পারেন তারও ব্যবস্থা অতি দ্রুত নেয়া হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*